উত্তরে ১৫ নং ওয়ার্ডে ইসলামী আন্দোলন সমর্থিত প্রার্থীর জয়লাভ

প্রকাশিত: ৪:৫৭ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ১, ২০২০

ঢাকার উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ১৫ নং ওয়ার্ডে ইসলামী আন্দোলন সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী জয় পেয়েছেন বলে জানা গেছে।

ঢাকার উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আইএবি সমর্থিত প্রার্থী আলহাজ্ব জহির আহমেদ বেসরকারি ফলাফল গণনায় জয়লাভ করেছেন। তিনি ঘুড়ি প্রতিকে জয়লাভ করেছেন বলে জানা গেছে। বিস্তারিত খবর আসছে।

অপরদিকে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মহাসচিব অধ্যক্ষ ইউনুস আহমাদ বলেছেন, সরকার নির্বাচনের নামে আবার প্রতারণা করেছে। জনগণকে নির্বাচনে নামিয়ে ভোট দিতে না দেওয়া, হাতপাখার এজেন্টদের কেন্দ্র থেকে মারধর করে বের করে দেয়া জাতির সাথে নির্বাচন নিয়ে চরম গাদ্দারীর শামিল।

এধরণের প্রহসণ, ধোকাবাজি ও প্রতারণার কোন মানে হয় না। তিনি বলেন, দেশবাসী অত্যন্ত আশা করেছিল, আওয়ামীলীগ ভোট ডাকাতির পথ পরিহার করবে এবং জাতিকে একটি স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ নির্বাচন উপহার দিবে। কিন্তু সরকার তাদের পুরোনো অভ্যাস ভোট ডাকাতির পথ থেকে ফিরে আসতে পারেনি।

নির্বাচন কমিশন সরকারের আজ্ঞাবহ কমিশনে পরিণত হয়েছে। মহাসচিব মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বিবৃতিতে দায়িত্ব পালনকালে বিভিন্ন মিডিয়ার সংবাদকর্মীদের ওপর সরকার দলীয় সন্ত্রাসীদের হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন। ঢাকা দক্ষিণ সিটির ২৮টি কেন্দ্র থেকে প্রায় তিন শতাধিক এজেন্টকে মারধর করে বের করে দেয়।

যে সকল কেন্দ্র থেকে হাতপাখার এজেন্টদের বের করে দেয়া হয়-

০১. ধানমন্ডি , সিটিকলেজ, ৭.১৫ মিনিট প্রিজাইডিং অফিসার এজেন্টদের কার্ডে স্বাক্ষর দিতে অস্বিকৃতি জানায়। ০২. ধানমন্ডি, বিদ্যানিকেতন , ৮.৪০ মিনিট আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা এজেন্টদেরকে বেরকরে দিয়েছে ০৩. হাজারিবাগ, নতুনকুড়িপ্রাইমারী স্কুল, ৯.০৫মিনিট ফিঙ্গার নেয়ার পর ভোটারকে বাহির করে দিয়ে জোর করে ভোট নিয়ে নিয়েছে। ০৪. সবুজবাগ, নন্দিপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৯.২০ মিনিট আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা এজেন্টদেরকে বের করে দিয়েছে।

০৫. গেন্ডরিয়া, নারিন্দ্রা গর্ভমেন্ট স্কুল ,৮.৫৫মিনিট, আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা এজেন্ট কে ২বার বের করে দিয়েছে, ০৬. খিলগাঁও, হাজী মসজিদ মাদ্রাসা, ৯.৩০ মিনিট, আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা এজেন্টদেরকে বের করে দিয়েছে ম্যাজিস্ট্রেট কে জানানো হলেও তিনি কোনব্যাবস্থা নেননি। ০৭. কামরাঙ্গিরচর , ৯.০০ মিনিট

আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা এজেন্টদেরকে বের করে দিয়েছে ০৮. গেন্ডরিয়া, কোব্বাদ সরদার সরকারী প্রাথমিক, ৯. ৪৫ মিনিট আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা এজেন্টদেরকে বের করে দিয়েছে ০৯. হাজারিবাগ, জরিনা সিকদার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৯.৩০ মিনিট পুলিশ এজেন্ট বের করে দিয়েছে ।

১০. শ্যামপুর,মাইনুদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়, ৮.৩০ মিনিট এজেন্ট বের করে দিয়েছে। ১১.ধানমন্ডি ৩২ , নিউমডেল ডিগ্রি কলেজ, ৯.১০মিনিট কেন্দ্রে কাউকে ভোটদিতে দেয়া হচ্ছেনা এবং এজেন্ট বের হয়ে যাওয়ার জন্য হুমকি দিচ্ছে। ১২.ধানমন্ডি ৩২ , নিউমডেল স্কুল, ৯.১০মিনিট নৌকায় জোরপূর্বক ভোট নিয়ে নিচ্ছে ।

১৩.বংশাল, পশুহাসপাতাল কেন্দ্র, ৮.৩০ মিনিট প্রিজাইডিং অফিসার এজেন্ট বের করে দিয়েছে। ১৪. যাত্রাবাড়ী, শেখদি আব্দুল্লাহ মোল্লাস্কুল এন্ড কলেজ, ৯.৩০ মিনিট আওয়ামীলীগ কাউন্সিলর প্রার্থীর লোকেরা ৮ জন এজেন্টকে বের করে দিয়েছে। ১৫.যাত্রাবাড়ী, গোবিন্দপুর ফ্রেন্ডস স্কলাস্টিক ইনিস্টিটিউট স্কুল, ৯.৩০ মিনিট আওয়ামীলীগ কাউন্সিলর প্রার্থীর লোকেরা এজেন্টদের ঢুকতে দেয়নি।

১৬.যাত্রাবাড়ী, রায়েরবাগ রশিদবাগ স্কুল, ৯.৩০ মিনিট এজেন্টদের বেরকরে দিয়েছে। ১৭. কামরাঙ্গিরচর মাদবর বাজার হাই স্কুল, ৯.০৬ মিনিট ৪ জন এজেন্ট বের করে দিয়েছে। ১৮.কামরাঙ্গিরচর,মাদবর বাজার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ৯.০৬ মিনিট এজেন্টদের কে বের করে দিয়েছে।

১৯. কামরাঙ্গিরচর, হাজী আব্দুল আউয়াল কলেজ, ১০.০৪ মিনিট ভোটারদের জোর করে নৌকায় ভোট দিতে বাধ্য করা হচ্ছে। ২০.মুগদা, সাউথ এশিয়ান আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজ, এজেন্টদেরকে বের করে দিয়েছে। ২১. মুগদা, মহানগর আইডিয়াল স্কুল এজেন্টদের বেরকরে দিয়েছে। ২২.মুগদা, হায়দার আলী উচ্চ বিদ্যালয় এজেন্টদের বের করে দিয়েছে। ২৩. খিলগাঁও, খিলগাঁও মিনার মসজিদ মাদ্রাসা, ১০.৩০ মিনিট এজেন্ট বেরকরে দিয়েছে। ২৪. খিলগাও, ভুইয়া পাড়া পাঞ্জেরী স্কুল এজেন্টদেরকে বেরকরে দিয়েছে। ২৫.এ্যাডভান্স স্কুল, ভুইয়া পাড়া এজেন্টদেরকে বের করে দিয়েছে। ২৬. ভুইয়া পাড়া নুরানী মাদ্রাসা এজেন্টদেরকে বের করে দিয়েছে।

২৭.নতুন কুড়ি স্কুল ভুইয়া পাড়া এজেন্টদের বের করে দিয়েছে। ২৮.হাজী মসজিদ মাদ্রাসা এজেন্টদের বেরকরে দিয়েছে। এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শারীরিক শিক্ষা কেন্দ্রে ভোট দিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত দক্ষিণ সিটির হাতপাখার মেয়র প্রার্থী আলহাজ্ব আব্দুর রহমান। আজ সকাল ১০টায় তিনি তার ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

ইসমাঈল আযহার/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন