সনাতন ধর্ম ত্যাগ করে একই পরিবারে ৪ জনের ইসলাম গ্রহণ

প্রকাশিত: ৮:৫৯ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২৬, ২০২০

সুনামগঞ্জের ছাতকে স্বামীর পথ অনুসরণ করে দুই শিশু সন্তানকে নিয়ে শান্তির ধর্ম ইসলাম গ্রহণ করলেন স্ত্রী।

আদালতে ধর্মান্তর সংক্রান্ত হলফনামার আলোকে স্ত্রী দুই সন্তানসহ গত শুক্রবার বিকেলে হাফেজ মাওলানা আবুল ফজল মোহাম্মদ ত্বোহার কাছে পবিত্র কালেমা পাঠ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। এর প্রায় এক মাস আগে সেলুন ব্যবসায়ী স্বামী ইসলাম গ্রহণ করেন।

ইসলাম গ্রহণের পর এক লাখ এক টাকা দেনমোহর ধার্য করে সনাতন ধর্ম ত্যাগ করে আসা দু’জনের বিয়ে পড়িয়ে দেয়া হয়। একই পরিবারের চার সদস্য শান্তির ধর্ম ইসলাম গ্রহণ করায় এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

জানা যায়, সুনামগঞ্জ জেলার জামালগঞ্জ উপজেলার বেহেলী ইউনিয়নের রহিমপুর গুচ্ছগ্রামের মনোরঞ্জন দাসের পুত্র, বর্তমানে ছাতক উপজেলার গোবিন্দগঞ্জ কলেজ সংলগ্ন এলাকার সেলুন ব্যবসায়ী অনিক দাস মোহাম্মদ আবদুল্লাহ নামে গত বছরের ১৯ ডিসেম্বর সুনামগঞ্জের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বেলাল উদ্দিনের আদালতে ধর্মান্তর সংক্রান্ত হলফনামা সম্পাদন করে স্ত্রী ও সন্তানদের রেখে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন।

স্বামী ইসলাম গ্রহণের প্রায় একমাস পর গত বৃহস্পতিবার সুনামগঞ্জ আদালতে ধর্মান্তর হলফনামা সম্পাদনের মাধ্যমে স্ত্রী শ্রীমতি বালা দাস নামের স্থলে মোছা. রহিমা জান্নাত হামিদা (২৫), ৬ বছরের কন্যা শিশু নন্দিনী নামের স্থলে আয়েশা জান্নাত ও দেড় বছরের পুত্র মনি অনুরাগ নামের স্থলে মো. রায়হান আহমদ রাহী নাম পরিবর্তন করে একসাথে পরিবারের তিন সদস্য ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন।

বিয়েতে ব্যবসায়ী শেখ আবদুল বাছিত উভয়পক্ষের উকিল হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। বরের পক্ষে মুজিবুর রহমান ও আবদুল করিম এবং কনের পক্ষে আবুল লেইছ কাহার ও আবদুস সামাদকে স্বাক্ষী হিসেবে মনোনীত করা হয়।

ইসমাঈল আযহার/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন