জবি শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে প্যানেল ছাড়াই সভাপতি পদে মিল্টন বিশ্বাস

প্রকাশিত: ৪:১১ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৪, ২০২০

ফয়সাল আরেফিন, জবি প্রতিনিধি: জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শিক্ষক সমিতির কার্যনির্বাহী পরিষদ নির্বাচন ২৮ জানুয়ারী। এই নির্বাচনক ঘিরে চলছে ব্যাপক প্রচার প্রচারনা। বিভাগে বিভাগে গিয়ে প্রচারণা চালাচ্ছেন শিক্ষকরা। বিএনপিপন্থী সাদা দল ছাড়াই এবারের নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের শিক্ষকরা দুটি প্যানেল দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার(২৩ জানুয়ারী) প্রধান নির্বাচন কমিশনার ড. মোঃ মনিরুজ্জামান খন্দকার স্বক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানা যায় , ১৫ সদস্যবিশিষ্ট কার্যনির্বাহী কমিটি গঠনের লক্ষ্যে প্রত্যেক পদে ২জন করে অংশগ্রহন করলেও সভাপতি পদে ৩ জন শিক্ষক অংশগ্রহন করেছেন।

এরমধ্যে নির্বাচনে কোনো প্যানেল ছাড়াই সভাপতি পদে অংশগ্রহন করছেন জয় বাংলা শিক্ষক সমাজের আহ্বায়ক ও বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. মিল্টন বিশ্বাস।

এদিকে ক্ষমতাসীন নীল দলের দুই প্যানেল থেকে সভাপতি পদে লড়ছেন পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড.মোঃ নূরে আলম আব্দুলাহ এবং একাউন্টিং এবং ইনফরমেশন সিস্টেম বিভাগের অধ্যাপক ড. মোঃ শওকত জাহাঙ্গীর ।

এবার নির্বাচনে ৬ টি পদে মোট ৩১ জন পদ প্রত্যাশি শিক্ষক লড়াই করেছেন এবং মোট ভোটার ৬৭৮ জন। এদের মধ্যে থেকে ১৫ জন নির্বাচিত হবেন। সদস্যপদে ১০ ছাড়া বাকি ৫ পদে একজন করে নির্বাচিত হবেন। নির্বাচনে সভাপতি পদে ৩ জন , সহ-সভাপতি পদে ২জন, সাধারণ সম্পাদক পদে ২ জন, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক পদে ২জন , কোষাধ্যক্ষ পদে ২ জন এবং সদস্য পদে ২০ জন শিক্ষক নির্বাচনে অংশগ্রহন করছেন।

এদিকে জয়বাংলা শিক্ষক সমাজের আহ্বায়ক ও বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. মিল্টন বিশ্বাসের এককভাবে নির্বাচনে অংশগ্রহনের বিষয়টি শিক্ষকদের মধ্যে ব্যাপক আলোচনাও হচ্ছে। যখন ক্ষমতাসীন দলের শিক্ষকরা যখন তাদের মতাদর্শদের অমিলের বিভক্ত হয়ে প্যানেল দিয়ে নির্বাচন করেছেন তখনেই জয় বাংলা শিক্ষক সমাজের আত্মপ্রকাশ ঘটে। এ নিয়ে অনেক শিক্ষকদের মনে ভীতির সঞ্চার হয়।

নাম প্রকাশ করার না শর্তে বেশ কয়েকজন সিনিয়র শিক্ষক জানান, যখন ক্ষমতাসীন নীল দলের শিক্ষকরা নিজের মধ্যে দলাদলি শুরু করেছে তখন একটা বিশুদ্ধ সংগঠনের উত্থানের প্রয়োজন ছিল। জয় বাংলা শিক্ষক সমাজ শুধু বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধারণ করা শিক্ষকদের নিয়ে গঠিত একটি সংগঠন।

জানা যায়, সভাপতি পদে প্যানেল ছাড়া লড়াইকারী জয় বাংলা শিক্ষক সমাজের আহ্বায়ক ও বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. মিল্টন বিশ্বাস একাধারে কলামিস্ট, প্রাবন্ধিক, সাহিত্য সমালোচন, কবি এবং বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়ের গণসংযোগ তথ্য ও প্রকাশনা দপ্তরের পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ২০০০ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে অধ্যাপনার মাধ্যমে কর্মজীবন শুরু করেন। ‘শালোম ফাউন্ডেশন’ নামে একটি মানবাধিকার সংগঠনের চেয়ারম্যান এবং বাংলা একাডেমির আজীবন সদস্য।

এ বিষয়ে সভাপতি পদ প্রার্থী ড. মিল্টন বিশ্বাস বলেন, আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধারণ করে এবং বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের বিপদে-আপদে এবং শিক্ষকদের অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে পাশে থাকতে চাই । আমরা আওয়ামী লীগের চিন্তাধারা নিয়ে কাজ করবো এবং পরামর্শ দেব। ইতোমধ্যে আমরা ‘‘জয় বাংলা শিক্ষক সমাজ’’ শিক্ষক সমাজ গঠন করেছি। এখানে যেসকল শিক্ষক আছেন সবাই বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধারণ করে । এখানে অন্য মতাদর্শের কোন শিক্ষক নেই।

তিনি আরো বলেন, এবারের নির্বাচনে শুধু সভাপতি পদে নির্বাচনে অংশগ্রহন করছি । আগামী বছর জয় বাংলা শিক্ষক সমাজের পক্ষ থেকে পূণাঙ্গ প্যানেল দিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহন করবো ।

/এসএস

মন্তব্য করুন