শর্ত না মানলে ইসরাইলকে জিহাদ আন্দোলনের কঠোর হুঁশিয়ারি

প্রকাশিত: ১২:৩৯ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৪, ২০১৯

ইহুদিবাদী ইসরাইলের সঙ্গে যুদ্ধবিরতির ব্যাপারে ফিলিস্তিনের ইসলামি জিহাদ আন্দোলন পূর্বশর্ত আরোপ করেছে। জিহাদ আন্দোলন এবং ইসরাইলের মধ্যে যুদ্ধবিরতি প্রতিষ্ঠার জন্য মিশর উদ্যোগ নয়োর পর জিহাদ আন্দোলন শর্ত আরোপ করল।

জিহাদ আন্দোলন হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছে, তাদের এই শর্ত পূরণ করা না হলে তারা গাজা উপত্যকা থেকে ইহুদিবাদী ইসরাইলের উপরে অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্ষেপণাস্ত্র হামলা অব্যাহত রাখবে। বুধবার (১৩ নভেম্বর) ইসলামি জিহাদের শর্তের কথা প্রকাশ করেছে।

সংগঠনের নেতা জিয়াদ আল নাখালা বলেন, গাজা সীমান্তে ফিলিস্তিনিরা যে বিক্ষোভ-প্রতিবাদ করে আসছে তাতে ইসরাইল কোনো আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করতে পারবে না, সব ধরনের টার্গেট কিলিং বন্ধ এবং গাজা উপত্যকার উপরে যে অবরোধ দিয়ে রেখেছে তা শিথিল করতে হবে।

লেবাননের আল-মায়াদিন টেলিভিশনকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি সতর্ক করে বলেন, যদি যুদ্ধবিরতি না হয় তাহলে ইসলামি জিহাদ আন্দোলন গাজা থেকে ইসরাইলের উপর অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্ষেপণাস্ত্র হামলা অব্যাহত রাখবে।

নাখালা বলেন, তিনি কায়রোর মাধ্যমে ইসরাইলের জবাব শোনার অপেক্ষা করছেন। জিহাদ আন্দোলনের এই নেতা পরিষ্কার করে বলেন, যদি যুদ্ধবিরতি না হয় তাহলে জিহাদ আন্দোলনের সশস্ত্র শাখা আল-কুদস ব্রিগেড দীর্ঘ সময় ধরে যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়ার ক্ষমতা রাখে।

গতকাল এই হুঁশিয়ারি দেওয়ার পর আজ সকালে ইহুদীবাদী ইসরায়েলের মুহুর্মুহু বিমান ও ক্ষেপনাস্ত্র হামলায় ২৬ জন শহীদ হয়েছে। তারা সবাই বেসামরিক নাগরিক।

বার্তা সংস্থা আনাদুলু ও পার্সটুডে জানিয়েছে, ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলের বিমান হামলায় আরও ৮ ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।

এ নিয়ে গত দু’দিনে গাজার ২৬ ফিলিস্তিনি শহীদ হওয়ার খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। নিহতদের মধ্যে ফিলিস্তিন মুক্তি আন্দোলনে জিহাদরত দু’জন শীর্ষ পর্যায়ের কমান্ডার রয়েছেন বলে জানা গেছে।

আই.এ/

মন্তব্য করুন