দাম কমছে পেঁয়াজের

প্রকাশিত: ১১:২৪ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ৮, ২০১৯

শুক্রবার (৮ নভেম্বর) থেকে নিজেদের বেঁধে দেওয়া মূল্যে পেঁয়াজ বিক্রি করবে শ্যামবাজার বণিক সমিতি। পাইকারি ব্যবসায়ীরা মিয়ানমারের পেঁয়াজ প্রতিকেজি ৮০ থেকে ৮৫ টাকায় বিক্রি করবেন। এছাড়া মিশর, তুরস্ক ও চীনের পেঁয়াজের কেজিপ্রতি ৫৫ থেকে ৬০ টাকায় বিক্রি করা হবে।

জানা গেছে, পেঁয়াজের মূল্য কমানোর জন্য সরকারের পক্ষ থেকে ব্যবসায়ীদের ভূমিকা রাখতে বলা হয়েছে। এরই অংশ হিসেবে শ্যামবাজার বণিক সমিতি পাইকারি ব্যবসায়ীদেরকে একটি মূল্য তালিকা দিয়েছে। বেঁধে দেওয়া মূল্যের বেশি দামে পেঁয়াজ বিক্রি করলে সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে সমিতির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

এদিকে রাজধানীর খিলগাঁও, মতিঝিল টিঅ্যান্ডটি, ফকিরাপুল, সেগুনবাগিচা, রামপুরা, খিলগাঁও রেলগেট কাঁচাবাজার ঘুরে এ চিত্র দেখা গেছে, বাজারভেদে প্রতিকেজি দেশি পেঁয়াজ ১২০ থেকে ১৩০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। এক সপ্তাহ আগে প্রতিকেজি দেশি পেঁয়াজ ১৪০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে। এসব বাজারে বর্তমানে প্রতিকেজি আমদানি করা ভারতীয় (বড়) পেঁয়াজ বিক্রি হতে দেখা গেছে ১২০ থেকে ১২৫ টাকা।

গত চার মাস ধরে বাজারে উঠা-নামা করছে পেঁয়াজের দাম। এ সময়ের মধ্যে প্রতিকেজি পেঁয়াজ ক্রেতাদের কিনতে হয়েছে সর্বোচ্চ ১৪০ টাকা দামে। তবে এখন তা কমে বাজারভেদে ১২০ থেকে ১৩০ টাকায় বিক্রি হতেও দেখা গেছে। দাম কিছুটা কমলেও তা পর্যাপ্ত না বলে মনে করছেন ক্রেতারা। এ নিয়ে ক্রেতা-বিক্রেতার মধ্যে রয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া।

এক সপ্তাহ আগে আমদানি করা ভারতীয় পেঁয়াজ (ছোট) প্রতিকেজি বিক্রি হয়েছিল ১৩০ থেকে ১৪০ টাকা। সপ্তাহের ব্যবধানে প্রতিকেজি সব ধরনের পেঁয়াজে ১০ টাকা কমেছে। তবে পেঁয়াজে দাম কমলে এ নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া রয়েছে ক্রেতা-বিক্রেতার মধ্যে।

আই.এ/

মন্তব্য করুন