‘ভোলার ঘটনায় অবিলম্বে ঘাতকদের কঠোর শাস্তি দিতে হবে’

প্রকাশিত: ১১:০৭ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৩, ২০১৯

ইসমাঈল আযহার, সিনিয়র রিপোর্টার

ভোলার বোরহানুদ্দিনে মহান আল্লাহ তায়া’লা ও মহানবী সা. কে নিয়ে কটুক্তি নিয়ে বিবৃতি দিয়েছে বাংলাদেশ ইসলামী আইনজীবী পরিষদ। বিবৃতিতে হিন্দু বিপ্লব চন্দ্র শুভ’র সর্বোচ্চ শাস্তি এবং নবীপ্রেমিক ঈমানদার জনতার ওপর পুলিশ নির্বিচারে গুলি চালিয়ে ৭ জনকে শহীদ এবং দেড় শতাদিক জনতাকে আহত করার ঘটনায় জড়িতদের কঠোর শাস্তির জানিয়েছে বাংলাদেশ ইসলামী আইনজীবী পরিষদের নেতারা।

আইনজীবী নেতারা বলেন, ৯২ ভাগ মুসলমানের দেশে আল্লাহ তায়া’লা ও বিশ্বনবী (স.)-কে নিয়ে কটুক্তি করবে তা কখনো সহ্য করা যায় না। বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক দেশ, শান্তিপূর্ণ মিছিল মিটিংয়ের মাধ্যমে সরকারের নিকট নিজেদের দাবী-দাওয়া পেশ করা এবং দোষীদের বিচার চাওয়া নাগরিক অধিকার।

শান্তিপূর্ণ মিছিলে এভাবে নির্বিচারে গুলি চালিয়ে নবীপ্রেমিকদের শহীদ করে লক্ষ কোটি তৌহিদী জনতার কলিজায় আঘাত করা হয়েছে। মুসলমানদের শরীর থেকে রক্ত ঝরবে তা দেশে জনগণ মেনে নেবে না। অবিলম্বে বিচার বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।

এদিকে ভোলার বোরহানুদ্দিনে মহান আল্লাহ তায়া’লা ও মহানবী সা. কে নিয়ে কটুক্তিকারী হিন্দু বিপ্লব চন্দ্র শুভ’র সর্বোচ্চ শাস্তি এবং নবীপ্রেমিক ঈমানদার জনতার ওপর পুলিশ নির্বিচারে গুলি চালিয়ে ৭ জনকে শহীদ এবং দেড় শতাদিক মুসল্লিকে আহত করার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করে জড়িতদের কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছে জাতীয় তাফসীর পরিষদ।

তাফসীর পরিষদের নেতারা বলেন, শান্তিপূর্ণ মিছিলে এভাবে নির্বিচারে গুলি চালিয়ে নবীপ্রেমিকদের শহীদ করে লক্ষ কোটি তৌহিদী জনতার কলিজায় প্রতিবাদের আগুন জ্বালিয়ে দিয়েছে।

তারা বলেন, একটি পক্ষ বার বার আল্লাহ রাসূল সা.কে উস্কানি দিয়ে দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করতে উঠেপড়ে লেগেছে। ওই মহলটির পেছনে কারা ইন্ধন যোগাচ্ছে, তাদেরকে শাস্তির আওতায় আনতে হবে। অবিলম্বে বিচার বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে দোষীদের কঠোর শাস্তির ব্যবস্থারও দাবি জানান সংস্থাটির নেতারা।

আই.এ/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন