রাবি ভর্তি পরীক্ষায় বহিরাগতদের ডিউটি দেয়ার অভিযোগ

প্রকাশিত: ৬:৫৩ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৩, ২০১৯

রাবি প্রতিনিধি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মচারী বাদেও বহিরাগত দিনমুজুর ও বিভিন্ন পেশায় নিযুক্ত ব্যক্তিদের কর্মচারী হিসাবে ডিউটি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এতে করে বিশ্ববিদ্যালয়ের সংশ্লিষ্ট অনেক কর্মচারী ডিউটি না পাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার নীতি অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়োগভুক্ত কর্মচারী বাদে কেউ ডিউটি করতে পারবে না। এদিকে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা উপলক্ষ্যে গত ১৭ অক্টোবর ভর্তি পরীক্ষা কমিটি ও বিভাগের চেয়ারম্যানদের নিয়ে মিটিংয়ে এক প্রশ্নের উত্তরে উপাচার্য অধ্যাপক আব্দুস সোবহান বলেন, বাইরের কোন কর্মচারী পরীক্ষার হলে ঢুকতে পারবে না। এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ভূ-তত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক সুলতানুল ইসলাম।

অধ্যাপক সুলতানুল ইসলাম বলেন, এটি ভর্তি পরীক্ষা নীতির বিরুদ্ধের কাজ। এতে করে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক কর্মচারী নিজের অধিকার থাকা সত্বেও ডিউটি দিতে পারি নি এতে করে কিছু সুবিধাবাদী লোকের হাত ধরে বাইরের পিয়ন, দিনমুজুর সহ বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষ ডিউটি পেয়েছেন। আমি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানচ্ছি।

বহিরাগতদের ডিউটি দেওয়ার অভিযোগের সত্যতা জানতে আমাদের প্রতিবেদকের কাছে গত ২১ তারিখ এ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ড.খুদরাতে-ই-খুদা একাডেমিক ভবনের নিয়ন্ত্রন কক্ষ-৯ এর ডকুমেন্ট হাতে আসে। এতে সুস্পষ্টভাবে কক্ষ নাম্বার ৩৪১, ৪০৭, ৪২২ (এ), ৪২২ (বি) তে মাঠকর্মী, দিনমুজুর, টেবিল বয় হিসাবে ডিউটি দেওয়ার জন্য বহিরাগতদের নাম উঠে এসেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ড.খুদরাতে-ই-খুদা একাডেমিক ভবনের বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়োগভুক্ত এক কর্মচারী বলেন, আমি এবং অনেকে এবার কোন ডিউটি পায়নি। কিন্তু অনেক বহিরাগতেদর দেখলাম ডিউটি দিতে। এতে করে আমরা বঞ্চিত এবং একপ্রকার অপমানিত হচ্ছি।

এ বিষেয় কলা অনুষদের এ ইউনিটের দায়িত্বে থাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান বলেন, এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের নির্দেশ অনুযায়ী বিভিন্ন বিভাগ থেকে যে কর্মচারীর লিস্ট দেয়া হয়েছে সেটার উপর ভিত্তি করে এটা তৈরি করা হয়েছে। এর বেশি কিছু আমার জানা নেই।

আই.এ/

মন্তব্য করুন