বিকেলে ক্রিকেটারদের সঙ্গে আলোচনা করতে চায় বিসিবি

প্রকাশিত: ১:১০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৩, ২০১৯

বুধবার দুপুরে বিসিবিতে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে ক্রিকেটারদের সঙ্গে আলোচনায় বসতে আগ্রহের কথা জানান বোর্ডের প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরী।

এর আগে গতকাল (২১ অক্টোবর) ১১ দফা দাবিতে ধর্মঘটের ডাক দেয় বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের ক্রিকেটাররা। মিরপুর স্টেডিয়ামে সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মুশফিকুর রহিমের উপস্থিতিতে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কাছে ১১ দফা দাবি জানিয়েছেন ক্রিকেটাররা।

এসময় ১১ দফা দাবি না মানলে সব ধরণের খেলা থেকে বিরত থাকার ঘোষণা দিয়েছেন টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি সংস্করণের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

পারিশ্রমিকসহ ১১টি দাবি নিয়ে ধর্মঘট ডেকেছেন জাতীয় দলসহ ঘরোয়া আসরের সব ক্রিকেটার। তাদের দাবি যতদিন না মানা হবে ততদিন ঘরোয়া এবং আন্তর্জাতিক কোনো টুর্নামেন্টে অংশ নেবেন না সাফ জানিয়েছেন বাংলাদেশ দেলের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

সোমবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সংবাদ সম্মেলন করে বিভিন্ন দাবি তুলে ধরেন এ অলরাউন্ডার।

ক্রিকেটারদের দাবিগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো দেশের ক্রিকেটের অবকাঠামোগত উন্নয়ন,খেলোয়াড়দের বেতন-ভাতা বৃদ্ধি, জাতীয় ও প্রিমিয়ার লিগে (এনসিএল, বিপিএল, ডিপিএল) সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি, পাতানো ম্যাচ বন্ধে পরিকল্পনা প্রণয়ন, এনসিএলে ওয়ানডে ভার্সন নিয়ে আসা, ঘরোয়া মৌসুমের একটি সুষ্ঠু ক্যালেন্ডার তৈরি করা ইত্যাদি।

ক্রিকেটারদের মূখ্য দাবি, আন্তর্জাতিক ম্যাচসহ ঘরোয়া টুর্নামেন্টের ম্যাচগুলোতে ম্যাচ ফি বাড়াতে হবে। বিপিএল, ডিপিএলে আগের মতোই পারিশ্রমিক দিতে হবে। এনসিএলের ম্যাচ ফি ১ লাখ করতে হবে।

বাংলাদেশের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক সাকিব আল বলেন, যতদিন পর্যন্ত আমাদের দাবি পুরণ না হবে ততদিন আমরা আর ক্রিকেটের সঙ্গে যুক্ত থাকতে চাচ্ছি না।

আগামী ৩ নভেম্বর ভারতের মাঠে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম খেলায় অংশ নেবে বাংলাদেশ। এরপর হবে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ। ভারত সফরের আগে ২৫ অক্টোবর জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের ক্যাম্প শুরু হবে। যদি দাবি না মানা হয় তাহলে আপনারা কি ক্যাম্পে যোগ দেবেন না?

এমন প্রশ্নের জবাবে সাকিব আল হাসান বলেন, যতক্ষণ পর্যন্ত আমাদের দাবি মেনে নেয়া না হবে ততক্ষণ পর্যন্ত আমরা খেলায় মনোনিবেশ করব না। আমরাও খেলতে চাই। আমরা হয়ত আর দুই তিন বছর জাতীয় দলে খেলব। কিন্তু যারা ভবিষ্যতে আসবে তারা যাতে এসব সমস্যার সম্মুক্ষিণ না হয় সেজন্যই আমাদের এ দাবি।

ইসমাঈল আযহার/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন