নাইক্ষ্যংছড়িতে ইউপি নির্বাচনে বিজিবির গুলি, নিহত ২

প্রকাশিত: ৩:২২ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৫, ২০১৯

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির ঘুনধুম ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দুই পক্ষের সংঘর্ষ চলাকালে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্যদের গুলিতে দুজন নিহত হয়েছেন। গতকাল সোমবার ভোটগ্রহণ শেষ হওয়ার ঘণ্টাখানেক আগে ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ফাত্রাঝিরি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও ইউপি নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার আবু জাফর ছালেহ এ ঘটনা নিশ্চিত করেছেন।

নিহত ব্যক্তিরা হলেন মংচিং তঞ্চঙ্গ্যা (৪০) ও অংচামং তঞ্চঙ্গ্যা (৩৪)।

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার মিয়ানমার সীমান্তবর্তী ইউনিয়ন ঘুমধুমে সোমবার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে চেয়ারম্যান পদে তিনজন এবং সদস্য পদে ৩৫ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, ৮ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার পদে দুই প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আজমত আলী ও বাবুল কান্তি তঞ্চঙ্গ্যার সমর্থকদের মধ্যে প্রথমে তর্ক-বিতর্ক ও পরে হাতাহাতি শুরু হয়। একপর্যায়ে উভয় পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে দায়িত্বরত বিজিবি গুলি করে। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই মংচিং তঞ্চঙ্গ্যার মৃত্যু হয়। কক্সবাজার হাসপাতালে নেওয়ার পর মারা যান অংচামং তঞ্চঙ্গ্যা।

নাইক্ষ্যংছড়ি থানার ওসি আনোয়ার হোসেন বলেন, ফাত্রাঝিরি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট চলাকালে বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে ৮ নম্বর ওয়ার্ডের দুই ইউপি সদস্য পদপ্রার্থী বাবুল তঞ্চঙ্গ্যা ও মোহাম্মদ আলীর সমর্থকরা বিবাদে জড়িয়ে পড়ে। “এ সময় বিজিবি গুলি ছুড়লে মংকিচা তঞ্চঙ্গ্যা ঘটনাস্থলে নিহত হন। কক্সবাজার হাসপাতালে নেওয়ার পর মারা যান অংচামং তঞ্চঙ্গ্যা।” এ ঘটনায় নির্বচানে কোনো ব্যাঘাত ঘটেনি বলে ওসি জানান।

বিজিবির কক্সবাজার ৩৪ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আলী হায়দার আজাদ বলেন, কেন্দ্রের বাইরে কিছু ভোটার বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করলে বিজিবি সদস্যরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গুলি ছোড়েন।

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের প্রথম দফায় গতকাল বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির সদর ইউনিয়ন, সোনাইছড়ি ও ঘুনধুম ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ভোটগ্রহণের সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, বিজিবি, র‌্যাব এবং পুলিশ, আনসার বাহিনীসহ বিপুলসংখ্যক নিরাপত্তাকর্মী মোতায়েন ছিল।

মুহসিন/

মন্তব্য করুন