ইরানি তেল ট্যাংকারে হামলা; সাহায্যে এগিয়ে আসেনি কেউ

প্রকাশিত: ১০:৩৭ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৪, ২০১৯

লোহিত সাগরে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার শিকার ইরানি তেল ট্যাংকার। এ হামলায় তেল ট্যাংকারটিকে সাহায্য করার আবেদনে আশপাশের কোনো সমুদ্রবন্দর সাড়া দেয়নি বলে জানিয়েছে তেহরান। শুক্রবার (১২ অক্টোবর) লোহিত সাগর দিয়ে যাতায়াতকারী ইরানি তেল ট্যাংকার ‘সাবিতি’র ওপর আধাঘণ্টার ব্যবধানে দুইবার ক্ষেপণাস্ত্র হামলা হয়। ইরান বলেছে, এটি আন্তর্জাতিক রীতিনীতি এবং মানবীয় মূল্যবোধের পরিপন্থি ঘটনা।  

এতে ট্যাংকারটির ক্ষতি হলেও কোনো ক্রু এতে হতাহত হননি।হামলার সময় ইরানি তেল ট্যাংকারটি সৌদি আরবের জেদ্দা সমুদ্রবন্দর থেকে ৬০ মাইল দূরে ছিল এবং জেদ্দা ছিল জাহাজটির সবচেয়ে কাছের বন্দর।এরপর সৌদি কোস্ট গার্ড শনিবার দাবি করে, তারা ইরানি তেল ট্যাংকারের ক্যাপ্টেনের কাছ থেকে সাহায্যের আবেদন পাওয়ার পর এটির সাহায্যে এগিয়ে যেতে চেয়েছিল।

এ দাবি সম্পর্কে ইরানের বন্দর ও জাহাজ চলাচল বিষয়ক সংস্থা রোববার এক বিবৃতিতে বলেছে, জাহাজটি শনিবার গ্রিনিচমান সময় ৫টা ১১মিনিট থেকে ৭টা ২০ মিনিট পর্যন্ত ১৬ বার আশপাশের বন্দরগুলোর কাছে সাহায্যের আবেদন জানিয়েছে।

ওই সংস্থা আরো বলেছে, কারো কাছ থেকে সাহায্যের আশ্বাস না পেয়ে জাহাজটির ক্যাপ্টেন গ্রিনিচমান সময় ৮টা ২০মিনিটে সৌদি আরবের জেদ্দা, মিশর ও সুদানের উদ্ধার কর্তৃপক্ষের কাছে ইমেইল পাঠান।ওই ইমেইলে তিনি জানান, তার জাহাজটি সম্ভবত সন্ত্রাসীদের দু’টি ক্ষেপণাস্ত্র হামলার শিকার হয়েছে; কাজেই তার জরুরি সাহায্যের প্রয়োজন।

ইরানের বন্দর ও জাহাজ চলাচল বিষয়ক সংস্থার বিবৃতিতে বলা হয়, এরপর ক্ষতিগ্রস্ত জাহাজটির সবচেয়ে নিকটবর্তী বন্দর সৌদি আরবের জেদ্দায় ইরানের পক্ষ থেকে বারবার সাহায্যের আবেদন জানানো সত্ত্বেও তারা সাড়া দেয়নি।সর্বশেষ পাওয়া খবরে জানা গেছে, ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ক্ষতিগ্রস্ত তেল ট্যাংকারটি ইরানে ফিরে আসছে।

আই.এ/

মন্তব্য করুন