কুমারী পূজোয়, কুমারীর আসনে মুসলিম বালিকা ফাতিমা!

প্রকাশিত: ৩:০৭ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ৭, ২০১৯

সম্প্রতি ভারতে এক মুসলিম কন্যাকে কুমারী রূপে পূজা করে কলকাতার বাগুইআটির অর্জুনপুরের দত্তবাড়ি। চার বছরের মুসলিম কন্যা ফাতেমাকে ‘কালিকা’ রূপে পূজার্চনা করে দত্তবাড়ির বধূ মৌসুমী দত্ত।

দুর্গাপূজার তিন দিনের মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অষ্টমী, যাকে মহাষ্টমীও বলা হয়। নারীশক্তির মহিমা প্রচারের জন্য নাকি স্বামী বিবেকানন্দ ১৯০১ সালের এই দিনে রামকৃষ্ণ মিশনের বেলুড় মঠে দুর্গার সঙ্গে সঙ্গে কুমারী পুজোর রীতি চালু করেছিলেন। তবে এর তিন বছর আগে বিবেকানন্দ প্রথম কুমারী পূজো করে  কাশ্মিরে গিয়ে এক মুসলমান শিকারা চালকের মেয়েকে দেখে তার দেবী বলে মনে হয়েছিল বলে।

কলকাতা গণমাধ্যম জানায়, ইঞ্জিনিয়ার তমাল দত্ত দীর্ঘদিনের ইচ্ছে বাড়ির পূজায় হিন্দু নয় এমন কোনো কুমারীকে দুর্গা হিসেবে পূজা করা হবে। তমাল দত্তের এই ইচ্ছের কথা জানতে পেরে এগিয়ে আসে কামারহাটির বাসিন্দা মোহাম্মদ ইব্রাহিম। তিনি তার চার বছর বয়সী ভাগ্নি ফতিমাকে কুমারী পূজার জন্য বাগুইআটির দত্তবাড়িতে দিতে রাজি হয়।

খবরে জানা যায়,আগ্রার ফতেপুরে মুদি দোকানে কাজ করে ফতিমার বাবা মোহাম্মদ তাহির। মা ও বাবার সঙ্গে ফতিমাও থাকে সেখানে। তমাল দত্তের ইচ্ছের কথা ইব্রাহিমের মুখে শুনে সুদূর আগ্রা থেকে মেয়েকে নিয়ে কলকাতায় ছুটে আসে তাহির ও তার স্ত্রী বুশরা। অষ্টমীর সকালে বাগুইআটির দত্তবাড়িতে ধূমধাম করে পূজিত হয় কুমারী ফতিমা।

/মুহসিন

মন্তব্য করুন