ইসলাম কোনও ধর্ম নয়; শুরু থেকে শেষ রাজনীতি: তাসলিমা

প্রকাশিত: ৯:০২ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৪, ২০১৯

ইসমাঈল আযহার:

আবারও ইসলাম নিয়ে কটুক্তি করলেন ভারতে নির্বাসিত ও বিতর্কিত লেখিকা তাসলিমা নাসরিন। এক ফেসবুক পোস্টে তিনি লিখেছেন, ‘চীন সরকার জিনজিয়াং প্রদেশের সংখ্যালঘু উইঘুর মুসলিমদের অত্যাচার করছে। এ নতুন কোনও খবর নয়। নতুন খবর হলো, অনেকগুলো মুসলিম দেশ কিন্তু উইঘুর মুসলিমদের নয়, সমর্থন করছে চীন সরকারকে। দেশগুলো সৌদি আরব, পাকিস্তান, ওমান, সিরিয়া, কাতার, সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন। ইসলাম আসলে কোনও ধর্ম নয়। ইসলাম শুরু থেকে শেষ অবধি নিতান্তই রাজনীতি ’

এর আগে গত ১ জুলাই বলিউডে সাড়া জাগানো অভিনেত্রী জায়রা ওয়াসিমের অভিনয় ছেড়ে দেওয়াকে নির্বোধ সিদ্ধান্ত বলে আখ্যায়িত করেন তাসলিমা। জায়রা ওয়াসিম তার ভেরিফায়েড ফেসবুক আইডি ও পেজে নিজেরে ধর্ম বিশ্বাস ও ঈমানের সাথে সাংঘর্ষিক হওয়ায় বলিউডে অভিনয় না করার ঘোষণা দিয়েছিলেন।  জায়রা ওয়াসিমের ওই সিদ্ধান্তে চটেছিলেন তিনি।  এক টুইটে প্রতিক্রিয়ায় বিস্ময় প্রকাশ করে লিখেছিলেন, ‘বলিউডের প্রতিভাধর অভিনেত্রী জায়রা ওয়াসিম এখন অভিনয় ছেড়ে দিতে চান কারণ সে মনে করে তার অভিনয় কর্মজীবন আল্লাহর ওপর তার বিশ্বাসকে ধবংস করে দিয়েছে। তাসলিম বলেন, কত নির্বোধ সিদ্ধান্ত! মুসলমান সম্প্রদায়ের অনেক প্রতিভাশালীকে বোরকার অন্ধকারের নিচে যেতে বাধ্য করা হয়েছে’।

গত ২ জুলাই রিফাত হত্যা নিয়ে তাসলিমা লিখেছেন, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হাসিনা বাংলাদেশের বিচার ব্যবস্থাকে ট্রাস্ট করেন না। তিনি মনেও করেন না দেশের বিচার ব্যবস্থাকে তিনি বেটার করতে পারবেন, বা পুলিশ জজ সাহেব প্রমূখের দুর্নীতি কিছু কমাতে পারবেন। নিজের ওপর মিনিমাম আস্থাও নেই তাঁর। তিনি কিছু হিটম্যানন পুষছেন। এদের পাঠিয়ে দেন আনসোশ্যাল বা সোশ্যাল মিডিয়ার বিচারে অপরাধীকে খুন করে আসতে। পোষা সাংবাদিকদের বলাই আছে, ক্রসফায়ারে নিহত লিখে পাঠক ভোলানোর জন্য। এইভাবেই চলছে। অনেকটা ভিডিও গেম এর মতো। ক্লিক করলেই বুম। জংগি, মাদক ব্যবসায়ী, খুনী, ধর্ষকদের এভাবেই বিচারবিহীন নিশ্চিহ্ন করে দেওয়া হচ্ছে।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে মুর্খ বলে গালি দিয়েছেন তিনি। ১২ এপ্রিল শুক্রবার  একটি পোষ্টে তাসলিমা নাসরিন লেখেন,ধর্মান্ধ সন্ত্রাসীগুলো ‘নাস্তিক’ শব্দটিকে গালি হিসেবে ব্যবহার করে, মূর্খ সরকার এতে সায় দেয়।  নাস্তিক একটি ইতিবাচক শব্দ, নাস্তিকের সংঙ্গে সম্পর্ক বিজ্ঞানের, যুক্তির, বুদ্ধির, মুক্তির, প্রগতির, সমতার, মানবাধিকারের, বাক স্বাধীনতার।

শ্রীলঙ্কায় ভয়াবহ জঙ্গি হামলার পর অন্যায়ভাবে দেশটির মুসলিম নারীদের জন্য বোরকা ও হিজাবসহ মুখ ঢেকে রাখা যায় এমন সব পোশাক নিষিদ্ধ করা হয়। শ্রীলঙ্কার এমন সিদ্ধান্ত বিশ্বব্যাপী সমালোচিত হলেও এ সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে গোটা বিশ্বে বোরকা নিষিদ্ধ করার দাবিও তুলেছিলেন তিনি। দেশ থেকে বিতারিত হওয়ার সময় জনরোষ থেকে বাঁচতে বোরকা পড়েই বিমানবন্দরে গিয়েছিলেন তসলিমা এমন কথাও প্রচলিত রয়েছে।

আইএ/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন