‘রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম’ জড়িয়ে আমাকে নিয়ে প্রকাশিত সংবাদ অসত্য ও বিভ্রান্তিকর : ব্যারিস্টার সুমন

প্রকাশিত: ৫:৫৩ অপরাহ্ণ, জুলাই ৪, ২০১৯

ব্যারিস্টার সুমন। একজন স্বনামধন্য আইনজীবী ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিপুল জনপ্রিয়তা অর্জন করা একজন ব্যাক্তি। সামাজিক যে কোনো সমস্যার সমাধানে তার উদ্যোগ সর্বমহলে প্রশংসিত। নিজ খরচে, নিজ উদ্যোগে গ্রাম-গঞ্জে, বিভিন্ন স্থানে ব্রিজ, কালভার্ট করে দিয়ে তিনি সর্বোচ্চ প্রশংসা পেয়েছেন জনগণের কাছে। চলার পথে যে কোনো অসংগতি বা অন্যায় দেখলে তিনি তা সমাধানে যথাযোগ্য কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করে তা সমাধান করিয়েও প্রশংসা পেয়েছেন সর্বমহলে। রাষ্ট্রীয় এবং জাতীয় অনেক বিষয় নিয়েও তার রয়েছে উপযুক্ত অবস্থান।

তার এই খ্যাতি ও জনপ্রিয়তা দেখে তাকে নিয়ে গুজব ও রিউমার ছড়ানোও কম হয়নি। আদালত একবার তার এসব সামাজিক কাজের ভূয়সী প্রশংসা করে তাকে সতর্ক করে দিয়োছিলো যে, “তার পেছনে লোক লেগে আছে তার ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার জন্য, তাই তিনি যেন সতর্ক থাকেন”

সম্প্রতি ধর্মীয় একটি বিষয় নিয়ে তার প্রতি অভিযোগ দায়ের করে অনলাইন ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বেশ প্রচারণা চালানো হয়েছে অনেক অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও ফেসবুক গ্রুপ থেকে। সেসব প্রচারণায় দেখা গেছে ব্যারিস্টার সুমনের প্রতি অভিযোগ দেওয়া হয়েছে তিনি নাকি বলেছেন;
“বাংলাদেশে সকল ধর্মের লোকের বসবাস তাই রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম হওয়া উচিত নয়”

তবে যারাই এই প্রচারণা চালাচ্ছে তারা এ ব্যাপারে তেমন কোনো যথাযোগ্য প্রমান দিতে পারেননি। কেবলমাত্র রাজনৈতিক মতপার্থক্যগত কারণে তার ব্যাপারে এমন ভূল তথ্য প্রচার করা হয়েছে বলেও দাবি তার শুভাকাঙ্ক্ষীদেরর। এমনকি এ বিষয়ে পাবলিক ভয়েস টোয়েন্টিফোর থেকে একটি অনুসন্ধান চালিয়েও ব্যারিস্টার সুমনের পক্ষ থেকে এমন কোনো বক্তব্যের প্রমান পাওয়া যায়নি। তিনি কোথাও রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম বিষয়ে কোনো বক্তব্য দেননি।

এ বিষয়ে ব্যারিস্টার সুমনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি একটি ভিডিও বার্তার বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন যেখানে তিনি এ বিষয়ে পরিস্কারভাবে সবকিছু বলেছেন। ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন,
“আমি কোনো বক্তব্যে কখনও ধর্ম নিয়ে কোনো মন্তব্যই করি না। আমাকে ধর্মের বিষয়ে এভাবে বিতর্কিত করার ষড়যন্ত্র না করলে কী হয় না আপনাদের? এই দেশে সামাজিক কাজ করার লোকজনের অনেক অভাব। আমি যেহেতু আমার জায়গা থেকে কিছু করার চেষ্টা করছি সেখানে আমাকে নিয়ে এসব ষড়যন্ত্র করে আপনাদের কী লাভ হবে জানি না”।

তিনি নিজের পরিচয় তুলে ধরে বলেন, আমি নিজে সৈয়দ বংশের ছেলে। আমাদের বংশের ব্যাপারে বলা হয় আমরা এই উপমহাদেশে ইসলামের বানী ছড়ানো ৩৬০ জন আউলিয়ার মধ্য থেকে কারও বংশের উত্তরসূরি। আমি আমার সকল বক্তব্য শুরু করি মহান আল্লাহর নাম নিয়ে। ইসলামের প্রতি আমার অগাধ বিশ্বাস ও ভালোবাসা রয়েছে। আমার কোনো বক্তব্য বা লেখায় আমি ইসলাম বা ধর্ম নিয়ে কোনো বিরূপ মন্তব্য করি না। সেখানে আমাকে জড়িয়ে ধর্ম ইস্যূতে এভাবে নেগেটিভ প্রচারণা সত্যিই দুঃখজনক।

তিনি এ বিষয়ে আরও বলেন, “আমি আওয়ামীলীগ সমর্থক। আওয়ামী বিরোধিতার জায়গা থেকে আপনারা আমার বিরোধিতা করতে পারেন। কিন্তু ধর্ম জড়িয়ে এভাবে আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা উচিত হবে না। এতে আপনারা কোনো লাভবান হবেন না।

তিনি আল্লাহ তায়ালার উপর বিশ্বাস রেখে যারা এই মিথ্যা প্রচারণা চালাচ্ছেন তাদের উদ্দ্যেশ্য করে বলেন, “সম্মান দেওয়ার মালিক একমাত্র আল্লাহ তায়ালা এবং বে-ইজ্জত করার মালিকও আল্লাহ তায়ালা। আল্লাহ যদি আমাকে সম্মান দেন তাহলে কেউ আমার সম্মান নষ্ট করতে পারবে না এই বিশ্বাস আমার আছে”। ভিডিও বার্তায় তিনি সবার প্রতি শুভকামনা জানিয়ে বলেন; আসুন, আমরা সকল ভেদাভেদ ভুলে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে একত্রে কাজ করে যাই।

মন্তব্য করুন