বলিউড ছেড়ে দেওয়ায় জায়রা ওয়াসিমকে নির্বোধ আখ্যা তাসলিমা নাসরিনের

প্রকাশিত: ৭:২৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ১, ২০১৯

বলিউডে সাড়া জাগানো অভিনেত্রী জায়রা ওয়াসিমের অভিনয় ছেড়ে দেয়াকে নির্বোধ সিদ্ধান্ত বলে আখ্যায়িত করেছেন নির্বাসিত নারীবাদী লেখিকা তাসলিমা নাসরিন।

গতকাল রোববার সকালে জায়রা ওয়াসিম তার ভেরিফায়েড ফেসবুক আইডি ও পেজে নিজেরে ধর্ম বিশ্বাস ও ঈমানের সাথে সাংঘর্ষিক হওয়ায় বলিউডে অভিনয় না করার ঘোষণা দেন। তার এই ঘোষণার পরই বলিউডপাড়াসহ দেশি-বিদেশী আন্তর্জাতিক বিভিন্ন গণমাধ্যমে ফলাও করে খবর প্রচার হয়। জায়রা ওয়াসিমের এই সিদ্ধান্তে বেজায় চটেছেন তাসলিমা নাসরিন।

তাসলিমা নাসরিন তার টুইটার একাউন্টে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় বিস্ময় প্রকাশ করে লিখেছেন, ‘বলিউডের প্রতিভাধর অভিনেত্রী জায়রা ওয়াসিম এখন অভিনয় ছেড়ে দিতে চান কারণ সে মনে করে তার অভিনয় কর্মজীবন আল্লাহর ওপর তার বিশ্বাসকে ধবংস করে দিয়েছে। তাসলিম বলেন, কত নির্বোধ সিদ্ধান্ত! মুসলমান সম্প্রদায়ের অনেক প্রতিভাশালীকে বোরকার অন্ধকারের নিচে যেতে বাধ্য করা হয়েছে’।

টুইটারে তাসলিমা নাসরিনের টুইট

ধর্মের কারণে চলচিত্র ছিনতাই- ‘কী নির্বিকার একটি সিদ্ধান্ত’ বলে বিস্ময় প্রকাশ করেন তাসলিমা।

প্রসঙ্গত, গতকাল নিজের ফেসবুকে বলিউড ছাড়ার ঘোষণা দেন জায়রা ওয়াসিম। নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক আইডি এবং পেজে দেয়া এক দীর্ঘ পোস্টে জায়রা ওয়াসিম বলেন, ‘৫ বছর আগের একটি সিদ্ধান্ত আমার জীবনকে বদলে দেয়। আমি তুমুল জনপ্রিয় হতে থাকি। আমার সফলতা আমাকে তরুণদের জন্য মডেল হিসেবে ‍তুল ধরতে থাকে। কিন্তু ৫ বছর পর আমি বুঝতে পারি আমি এটা হতে চাইনি। এই সফলতা আমাকে আমার ঈমান থেকে দূরে সরিয়ে দিচ্ছে। আমার ক্যারিয়ার আমার ধর্মের সঙ্গে সাংঘর্ষিক হয়ে দাঁড়ায়। মানুষের প্রচুর ভালোবাসা পাচ্ছিলাম কিন্তু এতে আমি শান্তিতে ছিলাম না। আমি আল্লাহর সাহায্যের উপর নির্ভর করি এবং আমি সিদ্ধান্ত নেই আমি আর অভিনয় করবো না। অর্থ, বিত্ত, খ্যাতি মানুষকে শান্তি দিতে পারে না। পবিত্র কোরআনে আল্লাহ তাআলার মহৎ বাণীতে শান্তি খুঁজে পেয়েছি। আমি আমার নতুন জীবন শুরু করতে চাই’।

/এসএস

মন্তব্য করুন