আড়ংকে জরিমানা করা ভোক্তা সংরক্ষণ কর্মকতাকে বদলির আদেশ ভাইরাল; সমালোচনার ঝড়

প্রকাশিত: ৩:১৫ পূর্বাহ্ণ, জুন ৪, ২০১৯

নেটিজেনরা বলছেন, সরকারী কর্তৃপক্ষের এমন আদেশ ভবিষ্যতে কর্মকর্তাদেরকে তাদের নৈতিক দায়িত্ব পালনে নিরুৎসাহিত করবে।


আড়ং এ অভিযান চালানো ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের অফিসার (উপ-পরিচালক) মনজুর মো. শাহরিয়ারকে সড়ক ও জনপথ অধিদফতর খুলনা জোনে বদলি করা হয়েছে। সেই আদেশের একটি কপি সোমবার দিবাগত রাতে ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে পড়ে।

ধারণা করা হচ্ছে আড়ংকে জরিমানা করার কারণেই প্রভাবশালীদের অবৈধ প্রভাবে তাকে বদলির আদেশ দেওয়া হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিষয়টি ভাইরাল হতেই সমালোচনা শুরু হয়েছে।

সমালোচনাকারীদের অভিযোগ অন্যায়কারীকে শাস্তি দেওয়ায় ওই কর্মকর্তাকে বদলির এই আদেশ দেওয়া হয়েছে যা নৈতিকতা পরিপন্থী। এর মাধ্যমে সরকারী কর্তৃপক্ষ অন্যায়ের পক্ষালম্বনকারী হিসেবেই চিহ্নিত হবে। তারা আরো বলেন, সরকারী কর্তৃপক্ষের এমন আদেশ ভবিষ্যতে কর্মকর্তাদেরকে তাদের নৈতিক দায়িত্ব পালনে নিরুৎসাহিত করবে।

  • জানা যায় সোমবার রাজধানীর উত্তরায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিকার এর বিশেষ অভিযানে পাঞ্জাবির দাম বেশি রাখার অভিযোগে আড়ংকে সাড়ে ৪ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। একই সঙ্গে প্রতিষ্ঠানটি সাময়িক বন্ধ করে দেওয়া হয়।

সংস্থাটির উপ-পরিচালক মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ারের সার্বিক তত্ত্বাবধানে এ অভিযান পরিচালনা হয়। অভিযানকালে তারা দেখেন, আড়ংয়ের ওই শো-রুমে ৭০০ টাকার পাঞ্জাবি ১ হাজার ৩০০ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছিলো।

জানা গেছে, গত ২৫ মে একজন ক্রেতা উত্তরা আড়ং থেকে একটি পাঞ্জাবি কেনেন ৭১৩ টাকায়। একই পাঞ্জাবি ৩১ মে কিনতে গেলে দাম রাখা হয় ১ হাজার ৩১৫ টাকা। এ চিত্র তুলে ধরে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরে অভিযোগ করেন ওই ভোক্তা।

এর পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল উত্তরা আড়ং-এ অভিযান চালিয়ে অভিযোগের সত্যতা পায় সংস্থাটি। এ সময় বেশি দাম রাখার কোনো কারণ জানাতে পারেনি আড়ংয়ের ওই শো-রুমের কর্মকর্তারা।

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার জানান, আড়ং একটি ব্র্যান্ড। দেশি ভালো পণ্য বিক্রি করে বলে তাদের প্রতি ক্রেতাদের রয়েছে আস্থা ও সরল বিশ্বাস। এটি পুঁজি করে কৌশলে ক্রেতাদের ঠকাচ্ছে, যা ভোক্তা আইনপরিপন্থী।

/এসএস

মন্তব্য করুন