গোপালগঞ্জে প্রশ্নপত্র দেয়ার কথাবলে টাকা নেয়ার অভিযোগ, আটক ২

প্রকাশিত: ৬:০৩ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৯, ২০১৯

পাবলিক ভয়েস: জেএসসি, পিইসি, এসএসসিসহ অন্যান্য পরীক্ষার ভুয়া প্রশ্নপত্র সংগ্রহ ও বিতরণের প্রলোভনে বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে দুই যুবককে আটক করেছে র‌্যাব-৮। তাদের কাছ থেকে কম্পিউটার, মোবাইল ফোন ও ব্যবহৃত সিম কার্ড জব্দ করা হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বরিশাল র‌্যাব-৮ এর কার‌্যালয়ের কনফারেন্স রুমে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।

আটকরা হলো- গোপালগঞ্জ জেলার মকসুদপুর থানার ঢাকপার এলাকার ওহাব শেখের ছেলে তারিকুল ইসলাম (২০) এবং একই এলাকার গোঞ্জর শেখের ছেলে লিমন (১৯) । এদের মধ্যে তারিকুল ইসলাম সরকারি মোকসেদপুর কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র এবং রিমন গোবিন্দপুর ডিগ্রি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে র‌্যাব-৮ এর উপ-অধিনায়ক মেজর সজীবুল ইসলাম সজীব বলেন, ‘PSC JSC SSC HSC ALL EXAM HELP LINE’ নামে ফেসবুক আইডি ও পেজ থেকে জেএসসি, পিইসি, এসএসসি ও এইচএসসির ভুয়া প্রশ্নপত্র বিক্রির স্ট্যাটাস দিত তারা।

তাদের দেয়া স্ট্যাটাস দেখে অনেক সুযোগ সন্ধানী শিক্ষার্থীরা প্রলোভনে পড়ে মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে প্রশ্নপত্র কিনতে আগ্রহ প্রকাশ করে। পরে সুযোগ সন্ধানী শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে প্রতারণা করে বিকাশের মাধ্যমে অর্থ আদায় করত তারা। এছাড়াও তারা মেসেঞ্জার, হোয়াটস অ্যাপে ও গোপন গ্রুপে কথোপকথন চালিয়ে শিক্ষার্থীদের প্রলুব্ধ করত এবং ফাঁদে ফেলতো। এমন সংবাদের ভিত্তিতে তারিকুল ও লিমনকে সকালে তাদের বাড়ি থেকে আটক করা হয়।

তিনি আরো বলেন, র‌্যাবের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা ভুয়া প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগের কথা স্বীকার করেছে। এছাড়া তাদের মোবাইল ফোন, ব্যবহৃত সিম কার্ড ও ফেসবুক আইডির তথ্য বিশ্লেষণ করে ভুয়া প্রশ্নপত্র বিক্রির ব্যাপারে সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেছে।

মেজর সজীবুল ইসলাম সজীব বলেন, এই চক্রের সঙ্গে বড় একটি গ্রুপ কাজ করছে। আমরা তাদের আইনের আওতায় নিয়ে আসতে কাজ শুরু করেছি। আটকদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে ।

মন্তব্য করুন