কিশোরগঞ্জে প্রার্থীতা ফিরে পেলেন ইসলামী আন্দোলনের দুই প্রার্থী

প্রকাশিত: ১১:১১ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ৭, ২০১৮
পাবলিক ভয়েস: প্রাথমিক যাচাই-বাছাইয়ে বাতিল হওয়া কিশোরগঞ্জের দুটি আসনে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশে তাদের প্রার্থীতা ফিরে পেয়েছে। মনোনয়ন বাতিলের বিরুদ্ধে আপিল নিষ্পত্তির দ্বিতীয় দিনে আজ শুক্রবার নির্বাচন কমিশন তাদের দুই প্রার্থীর মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করে।
প্রার্থীতা ফিরে পাওয়া দুই প্রার্থী হলেন, কিশোরগঞ্জ-২ ( কটিয়াদি-পাকুন্দিয়া) প্রার্থী আলহাজ্ব সালাহউদ্দিন রুবেল ও কিশোরগঞ্জ-৬ (ভৈরব-কুলিয়ারচর) আসনের মোহাম্মদ মুছা খান।
প্রার্থীতা ফিরে পাওয়ার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় কিশোরগঞ্জ-২ আসনের প্রার্থী আলহাজ্ব সালাহউদ্দিন বলেন, নির্বাচনের আগে এটি আরেকটি বিজয়। জেলা নির্বাচন কমিশন ঠুনকো অভিযোগে আমার প্রার্থীতা বাতিল করে। তিনি বলেন, বিদ্যুৎ বিল দেরিতে পরিশোধের অভিযোগে মনোনয়নপত্র বাতিলের ইতিহাস মনে হয় এই প্রথম।
তিনি তার নির্বাচনী আসনের সকলকে শুভেচ্ছা জানিয়ে ইসলামী আন্দোলনকে বিজয়ী করার আহ্বান জানান। একই অভিযোগে মনোনয়ন বাতিল হওয়া কিশোরগঞ্জ-৬ আসনে ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থী মোহাম্মদ মুছা খান বলেন, সরকার দলীয় নির্বাচন কমিশন আমাদেরকে অযথা হয়রানি করেছে। এখন আপিলের পর মনোননয় বৈধতা পেয়েছি।
এই ঘটনায় ঠুনকো অভিযোগে মনোনয়ন অবৈধ করে ব্যর্থতারই প্রমাণ দিয়েছে ইসি। উল্লেখ্য, সারাদেশে তিনশো আাসনে নির্বাচনের ঘোষণা দিয়ে তিনশো আসনেই প্রার্থী দিয়েছেন ইসলামী আন্দোলনের আমীর চরমোনাই এর পীর মুফতি সৈয়দ রেজাউল করীম।
প্রাথমিক বাছাইয়ে সারাদেশে ১৯ প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল হলে তারা সবাই আপিল করেন।
S/S

মন্তব্য করুন