শ্রীমঙ্গলে মুক্তিযোদ্ধা বিকাশ দত্তসহ তিন লাশ সৎকার ও দাফনে ইকরামুল মুসলিমীন

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি

প্রকাশিত: ৪:১৯ অপরাহ্ণ, মে ২৮, ২০২০

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের সবুজবাগে করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণকারী বীর মুক্তিযোদ্ধা বিকাশ দত্তের সৎকার সম্পন্ন করেছে ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন মৌলভীবাজার জেলা ও উপজেলা টিমসদস্যরা।

এছাড়াও শ্রীমঙ্গলে করোনায় মৃত্যুবরণকারী কাউন্সিলর আব্দুল আহাদ এবং জুড়ী উপজেলায় আব্দুল হান্নানের (৩৬) জানাজা ও কাফন-দাফন করেছে ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশনের টিম সদস্যরা। এ নিয়ে দুইদিনে টানা তিন লাশ দাফন ও সৎকার করেছে ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন মৌলভীবাজার জেলা টিম।

জানা যায়, গতকাল ২৮ মে বুধবার মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুবরণ করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা বিকাশ দত্ত।

পরে শ্রীমঙ্গল পৌর শ্মশান ঘাটে রাত ১টা ২০ মিনিটে ইকরামুল মুসলিমীনের সৎকারপ্রধান মঞ্জু দাশের নেতৃত্বে সৎকার কাজ আরম্ভ হয়ে শেষ হতে প্রায় ৫টা বাজে। এ সময় শ্মশান ঘাটে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের সদস্য সচিব জসিম উদ্দিন ও মৃতের ছেলে বাপ্পা দত্ত।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নজরুল ইসলাম জানান, যথাযথ সংক্রমণবিধি অনুসরণ করে আজ বৃহস্পতিবার ভোররাতে বীর মুক্তিযোদ্ধা বিকাশ দত্ত এর সৎকার করা হয়েছে। রাতেই সৎকার করার কারণে গার্ড অব অনার দেওয়া হয়নি।

তিনি জানান, পরিবারের লোকজন করোনা সন্দেহ করায় মৃত বিকাশ দত্তের স্যাম্পল নেওয়া হয়। পরিবারের সবার স্যাম্পলও নেওয়া হবে। রিপোর্ট আসার আগ পর্যন্ত তারা কোয়ারেন্টাইনে থাকবে।তিনি আরও জানান, আমাদের প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও তালিকাভুক্ত ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন এর টিম সদস্যরা মুক্তিযোদ্ধার সৎকার কাজ সম্পন্ন করে।

ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশনের মৌলভীবাজার জেলা টিমপ্রধান এহসান জাকারিয়া বলেন, শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নজরুল ইসলাম এর মাধ্যমে ফাউন্ডেশনের জেলা ও উপজেলা শাখা টিম সদস্যরা মুক্তিযোদ্ধা বিকাশ দত্তের সৎকার কার্য সম্পাদন করে।

এর আগে বাসা থেকে ট্রাকে করে লাশ শ্মশান ঘাট পর্যন্ত নিয়ে আসেন শ্রীমঙ্গল থানার পুলিশ সদস্যরা। এ সময় সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আশরাফুজ্জামান, শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সোহেল রানা-সহ শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশের একটি টিম উপস্থিত ছিল।

‘শ্রীমঙ্গলে গভীর রাতে সৎকারে ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন, উপজেলা প্রশাসন, থানা পুলিশের অংশগ্রহণ মানবিকতার অনন্য উদাহরণ হয়ে থাকবে বলেই মনে করছে সচেতন মহল’ বলছিলেন স্থানীয়রা।

এর আগে গত ২৬ মে মঙ্গলবার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে শ্রীমঙ্গলে প্রথম মৃত্যুবরণকারী শ্রীমঙ্গল পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ আব্দুল আহাদের জানাযা মঙ্গলবার বিকেল ৩টায় কালিঘাট রোডস্থ বায়তুল আমান জামে মসজিদ মাঠে উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে সম্পন্ন হয়েছে।

ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ এর মৌলভীবাজার জেলা শাখার টিম প্রধান, মৌলভীবাজার অনলাইন অ্যাক্টিভিস্ট ফোরামের সহ-সভাপতি তরুণ আলেম মাওলানা এহসানুল হক জাকারিয়ার সার্বিক তত্ত্বাবধানে এই জানাযায় অংশগ্রহণ করেন ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ এর শ্রীমঙ্গল শাখার টিম সদস্যরা।

এরপর ওইদিনই সন্ধায় মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলায় আব্দুল হান্নান (৩৬) নামের এক ব্যাক্তির মৃত্যু হয়েছে। তার বাড়ি উপজেলার গোয়ালবাড়ী ইউনিয়নের জালালপুর গ্রামে।

২৬ মে সন্ধ্যা ৭ টায় সিলেট শহীদ সামছুদ্দীন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আব্দুল হান্নানের মৃত্যু হয়। পরে কাউন্সিলর মোঃ আব্দুল আহাদের কাফন-দাফন শেষে রাতেই  আব্দুল হান্নানের কাফন-দাফন করে ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন মৌলভীবাজার জেলা টিম।

ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন মৌলভীবাজার টিম প্রধান মাওঃ এহসানুল হক জাকারিয়ার সার্বিক দিকনির্দেশনায়, জুড়ী উপজেলা টিম প্রধান মাওঃ মুহিবুর রহমান ও সহকারী টিম প্রধান মাওঃ আজম খানও এবং স্থানীয় কয়েকজনের সহযোগীতায় দাফন সম্পন্ন হয়। এছাড়াও সহযোগী টিম হিসাবে উপস্থিত ছিলো তাকরিম ফাউন্ডেশন মৌলভীবাজার।

এ বিষয়ে মৃতব্যাক্তির ভাতিজা আব্দুর রাজ্জাক জানান, গত ১১ মে কিডনি জনিত রোগ নিয়ে তার চাচা আব্দুল হান্নানকে সিলেট রাগীব-রাবেয়া হাসপাতালে ভর্তি করেন।

ওই হাসপাতালে তার চাচার শরিরে করোনা ধরা পরলে তারা ১৬ মে তাকে শহীদ সামছুদ্দীন হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন। সেখানে ১০দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর তার মৃত্যু হয়। তিনি নিজেও চাচার সেবা দিতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন।

/এসএস

মন্তব্য করুন