দুই দিনে করোনায় মৃত ৫জনের লাশ দাফন করেছে ইকরামুল মুসলিমীন

করোনাভাইরাস পরিস্থিতি

প্রকাশিত: ৯:৩২ অপরাহ্ণ, মে ২৪, ২০২০

সারাদেশে করোনায় মৃতদের লাশ দাফনে বিরামহীন কাজ করে যাচ্ছে ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন। গত দু’দিনে টানা ৫ জনের লাশ করেছে সংগঠনের একাধিক জেলা শাখা টিম। এছাড়াও ঢাকার বিশেষ টিম রাজধানীর মুগদায় আজ (২৪) সন্ধায় একজনের লাশ দাফন করেছে।

গত শনিবার এবং আজ রোববার ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন জামালপুর জেলা শাখা টিম ২ জনের লাশ দাফন করেছে। এছাড়া মোমেনশাহী ২ জন এবং নোয়াখালীতে একজনের লাশ দাফন করেছে সংগঠনের সংশ্লিষ্ট শাখার কর্মীরা। এছাড়াও আজ রোববার (২৪ মে) রাজধানীতে একজনের লাশ দাফন করেছে ঢাকার বিশেষ।

জামালপুর:

ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন জেলা শাখা টিম গত শুক্রবার (২২ মে) ও শনিবার (২৩ মে) টানা দুইটি লাশ দাফন করেছে। শুক্রবার মধ্যরাতে (বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত) জামালপুরের মেলান্দহে আব্দুস সাত্তার (৬৫) নামের একজনের মৃতদেহ দাফন করে।

আব্দুস সাত্তার মেলান্দহ উপজেলার ঝাউপাড়া ইউনিয়নের গাজীপুর গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন। তিনি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের গুরুত্বপূর্ণ নেতা ছিলেন।

করোনা পজেটিভ আসার পর গত বুধবার তাকে মোমেনশাহী হাসপাতালে আইসোলেশনে নেওয়া হয়। পরে সেখানেই বৃহস্পতিবার বিকেলে মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তিনি দুই স্ত্রী, তিন মেয়ে ও এক ছেলে রেখে গেছেন।

ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন জেলা শাখা টিম প্রধান মাওলানা মোহাম্মদ আশরাফুল আলম জানান, আব্দুস সাত্তারের লাশ দাফনে এলাকাবাসী বাধা প্রদান করে। পরে জেলা আওমাী লীগের সাধারাণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফারুক চৌধুরীরে হস্তক্ষেপে তার নিজস্ব অর্থায়নে ব্যবস্থাপনায় থাকা কবরস্থানে লাশ দাফন করা হয়।

আশরাফুল আলম বলেন, লাশ দাফন শেষ করে আমার নিজেরে গন্তব্যে ফিরে জুমার নামাজ পড়ি। এরপরই আমরা রওয়ানা হই জামালপুর সদর উপজেলার বিঘপাইতে। সেখানে পৌঁছে দিগপাইত ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের গান্দাইল গ্রামের আলহাজ্ব আনিসুর রহমানের লাশ দাফন করি।

আশরাফুল আলম জানান, কাফন-দাফন সম্পন্ন হয় শনিবার ভোরে সাহরীর পর। তিনি আরো জানান, আনিসুর রহমান ঢাকার শনিরাআখড়ায় চালের ব্যবসা করতেন। তিনি ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন ছিলেন। করোনা পজিটিভের পাশাপাশি তিনি ডেঙ্গুতেও আক্রান্ত হয়েছিলেন।

আলহাজ্ব আনিসুর রহমান শুক্রবার ঢাকা মেডিকেলে ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৫৪ বছর। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, দুই মেয়ে অন্যান্য স্বজন রেখে গেছেন।

কাফন-দাফনের ঢাকা টিম

মোমেনশাহী:

মোমেনশাহীর এসকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন করোনায় মৃত এক অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ দাফন করেছে ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন মোমেনশাহী জেলা শাখা টিম।

মোমেনশাহী বড় মসজিদের ইমাম মাওলানা আব্দুল হক পরিচালিত ‘খিদমাতুল মউত’ এর সমন্বয়ে শুক্রবার রাতে ওই ব্যক্তির লাশ দাফন করা হয়। শুক্রবার দুপুরে এসকে হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন মোমেনশাহী জেলা টিম প্রধান মুহাম্মাদ এহসানুল হক ও ‘খিদমাতুল মউত’ টিম প্রধান মাওলানা এমদাদুল হক জানান, সিটি কর্পোরেশন এর পক্ষ থেকে শুক্রবার তাদেরকে খবর দেয়া হলে তারা লাশ কাফন-দাফনের ব্যবস্থা করেন।

শুক্রবার (২২ মে) রাত ১১টায় দাফন সম্পন্ন হয় জানিয়ে তারা বলেন, মৃত ব্যক্তির কোনো স্বজন বা পরিচিতজনকে পাওয়া যায়নি এবং তার নাম পরিচয় সংক্রান্ত কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

নোয়াখালী: 

গত ২১ মে বৃহস্পতিবার এবং গতকাল শনিবার (২৩ মে) রাতে নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার কুতুবপুরে করোনায় মৃত দুইজনের লাশ কাফন-দাফন করে ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন।

ইকরামুল মুসলিমীন ফাউন্ডেশন নোয়াখালী জেলা টিম প্রধান ইব্রাহিম রনি জানান, দুইজনেই পাশাপাশি এলাকার। তারা  দু’জনই বাড়িতে থেকে মারা গেছেন। করোনা পরীক্ষা পজিটিভ ছিলো।

ইব্রাহিম রনি বলেন, স্থানীয় ইউনিয়ন স্বাস্থ্যসেবা কমপ্লেক্স থেকে আমাদেরকে জানানোর পর প্রশাসনের সহযোগিতায় আমরা লাশ কাফন-দাফনের ব্যবস্থা করি।

/এসএস

মন্তব্য করুন