মিশর আল-আযহার থেকে মিজানুর রহমান আযহারীকে খোলা চিঠি

প্রকাশিত: ৫:২০ পূর্বাহ্ণ, মে ৩, ২০২০

মোহতারাম শ্রদ্ধেয় সিনিয়র বড় ভাই!
সালাম নিবেন।

আল-আযহার বিশ্ববিদ্যালয়ের আপনার প্রিয় আবাসিক ক্যাম্পাস, মাদিনাতুল বুয়ুস আল ইসলামিয়্যাহর আপনার স্মৃতিময় আবাসিক ভবনটির নিচে দাড়িয়ে দুটি কথা আপনার সমীপে। নিশ্চয়ই ভালো আছেন, দোয়া করি সর্বদা।

মোহতারাম! আপনি জানেন যে,

فقه العبادات المقارن
و قضيا فقهية معاصرة
ইসলামী শরীয়াহর এই সাবজেক্ট দুটি শুধুমাত্র আপনি, আমি, আমরা যারা ইসলামী ফিকহ নিয়ে পড়াশোনা, গবেষণা করি তাদের জন্য। (আম জনতার জন্য নয়)।

আপনি নিশ্চয়ই দেখবেন, (فقه المقارن) এর ক্ষেত্রে কোনো ইখতেলাফি মাসায়েলে বিভিন্ন মাজাহেবের ইমামগন পক্ষে-বিপক্ষে অনেক মতামত, উসূলের আলোকে যুক্তি, তর্ক আবার যুক্তি খন্ডন উপস্থাপন করে থাকেন। শেষের দিকেও কওলুর রাজে বা সর্বশেষ গ্রহণযোগ্য সিদ্ধান্তটি সুস্পষ্ট ভাবে যুক্তির আলোকে মুসান্নিফ উল্লেখ করে থাকেন।

এখন কথা হল, আমি বা আপনি যদি ইমামদের এই সমস্ত ইখতেলাফগুলো পাবলিক প্লেসে বলি অথবা সর্বশেষ কওলুর রাজেটা সুস্পষ্ট ভাবে উল্লেখ না করি অথবা উক্ত মাসায়েলে মাজহাবের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত যদি এড়িয়ে যাই তাহলে এই আমজনতা তো ঘোলা পানিতে হাবুডুবু খাবে।

আপনি তো আযহারে পড়েছেন। এখানের শাইখদের মানহাজ তো আপনি আমার থেকে অনেক ভালো জানেন। ‘মাজহাবিউল ফিকহ’ তথা ফিকহ হবে মাজহাব কেন্দ্রীক। সালাফিজম নয়।

আপনি চমৎকার করে সব বিষয়গুলো উপস্থাপন করে থাকেন। এবং কিছু কিছু ক্ষেত্রেও এই সব বিষয়েও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত বলে থাকেন।

কিন্তু মোহতারাম বড় ভাই!
আমাদের দেশের অধিকাংশ যেহেতু হানাফী মাজহাব  অনুসরণ করে, সেহেতু আমরা যদি শুধু হানাফি ফিকহ ও মাসায়েলগুলো বর্ননা করি তাহলে কি দাওয়াতের এই প্লাটফর্মে যথেষ্ট নয়?

আপনি, আমি জানি যে, মিশরে কোরআন শরীফ দেখে কোনো কোনো মাসজিদে বা ইমামগন সালাহ পড়ে থাকেন। অথবা আমাদের ক্যাম্পাসের অন্য মাজহাব অনুসারীরা নামাজে হাত ছেড়ে দিয়ে দাঁড়ায়। ইত্যাদি, ইত্যাদি বিষয়গুলো তো আমাদের হানাফী মাজহাবে বৈধতা দেওয়া হয়নি। আর বাঙালি তো বুঝবে না। সেটা আপনি ভালো করেই জানেন।

তাহলে প্রিয় শাইখ, বড় ভাই আমার!
আমরা কেন মানুষদের বিতর্ক করার সুযোগ তৈরি করে দিবো? মাসায়েলে হানাফিকে একটু প্রমোট করা যায়না?

দোয়া করি। আল্লাহ আপনার সুদীর্ঘ হায়াত দারাজ করুন। মিশরে আপনাকে দেখতে চাই। ইনশাল্লাহ আবার আসবেন আপনার প্রিয় ক্যাম্পাসে।

আল-আযহার বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদেশি ছাত্রদের আবাসিক ক্যাম্পাস,
মাদিনাতুল বুয়ুস আল-ইসলামিয়্যাহ থেকে,

লেখক: সাইমুম আল-মাহদী
(স্কলারশীপ)
ইসলামী শরীয়াহ ডিপার্টমেন্ট,
আল আযহার বিশ্ববিদ্যালয়, কায়রো-মিশর।

[বি.দ্র: সাইমুম আল-মাহদী, এই চিঠির সত্যতা পাবলিক ভয়েসকে নিশ্চিত করেছেন।]

মুসলিম বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ ইসলামিক স্কলার, আহলে বাইত, ইয়েমেনের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা, আল-আযহার আশ-শরীফের কিবারুল উলামার যিনি একজন। ইলমে তাসাউফের বিখ্যাত শাইখ হাবিব উমর বিন হাফিজ (হাফিজাহুল্লাহ) এর সাথে লেখক।

আল-আযহার এর শাইখ হাবিব উমর বিন হাফিজ এর সাথে লেখ সাইমুম মাহদী

বর্তমান বিশ্বে যাকে বলা হয় আমিরুল মুমিনিন ফিল হাদীস। ফাদিলাতুশ শাইখ ড. আহমদ উমর হাশেম (হাফিজাহুল্লাহ) এর সাথে লেখক।

ড. আহমাদ উমর হাশেম এর সাথে লেখক সাইমুম মাহদী

/এসএস/পাবলিকভয়েস

মন্তব্য করুন