করোনা আক্রান্ত ৮০ ভাগেরই কোন চিকিৎসা লাগে না : স্বাস্থ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৫:১৪ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১৭, ২০২০

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলে ৮০ ভাগ রোগীর ক্ষেত্রে কোন চিকিৎসার প্রয়োজন হয় না বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। আজ শুক্রবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংয়ে যুক্ত হয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক একথা বলেন।

তিনি বলেন, করোনা আক্রান্তের ৮০ শতাংশের বেশি রোগীর কোনো চিকিৎসার প্রয়োজন হয় না। অন্যদের অক্সিজেন সাপোর্ট ও কিছু ওষুধ লাগতে পারে। ‘দেশের প্রতিটি হাসপাতালে অক্সিজেনের ব্যবস্থা রয়েছে উল্ল্যেখ করে তিনি বলেন, এই অক্সিজেন করোনাভাইরাসের রোগীর জন্য বেশি প্রয়োজন।

করোনাভাইরাস নিয়ে ’আজকের ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় মোট দুই হাজার ১৯০ জনের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কি না তা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২৬৬ জন। এ ছাড়া ১৫ জন মারা গেছেন। অন্যদিকে, নতুন করে নয়জন সুস্থ হয়েছেন। এ নিয়ে সুস্থ রোগীর সংখ্যা ৫৮ জন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, গত ৮ মার্চ থেকে আমরা করোনায় আক্রান্ত পজিটিভ রোগী পেয়েছি এক হাজার ৮৩৮ জন । এর মধ্যে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে পাঁচশত জন। অর্থাৎ হাসপাতালের চিকিৎসা নিয়েছে প্রায় ৩৩ ভাগ রোগী। বাকিরা বিভিন্নভাবে হোম কোয়ারেন্টিনে আছে। সারাদেশে এক দশমিক আট ভাগ রোগী আইসিইউ সাপোর্ট নিয়েছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সারাদেশে এক সপ্তাহের মধ্যে আইসিইউ সাপোর্ট নিয়েছে ২৭ জন। এই হারে ১০ হাজার রোগী যদি আইসিইউ সাপোর্ট নেয়, তাহলে ১৮০টি ভেন্টিলেটার সাপোর্ট লাগবে।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরো বলেন, আমরা আরো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করবো আগামীতে। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে মানুষ পরীক্ষা করতে চান না। এতে করে সংক্রমণের হার বাড়ছে। এ যুদ্ধের মূল হাতিয়ার হলো সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখা। করোনা পরীক্ষা করুন। নিজে বাঁচুন ও প্রিয়জনকে বাঁচান।

এদিকে নিজ বাসা থেকে অনলাইনে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, নতুন আক্রান্তদের মধ্যে ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে ২১ ভাগ রোগী, ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ১৯ ভাগ রোগী ও ৪০ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ১৫ ভাগ রোগী রয়েছে।

তিনি বলেন, ঢাকা শহরের মধ্যে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত মিরপুরে, এরপরে যাত্রাবাড়ী ও ওয়ারীতে রয়েছে। এ ছাড়া ঢাকার বাহিরে নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুর, চট্রগ্রামে রোগীর সংখ্যা ‍বৃদ্ধি পাচ্ছে। এনটিভির সৌজন্যে।

মন্তব্য করুন