প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেছিলো খালেদা জিয়ার পরিবার

প্রকাশিত: ৭:১৫ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৪, ২০২০
ফাইল ছবি

কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এ সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিলেন খালেদা জিয়ার ভাই-বোনসহ পরিবারের সদস্যরা। আজ মঙ্গলবার বিকেল ৪টায় গুলশানের নিজ বাসভবনে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলন এ কথা জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

তিনি বলেন, পরিবারের আবেদনের প্রেক্ষিতে বেগম খালেদা জিয়ার দণ্ডাদেশ ছয় মাসের জন্য স্থগিত করে তাকে মুক্তি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তারা এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিলেন। আইন মন্ত্রণালয় বরাবর একটি চিঠিও দিয়েছিলেন। যেন মানবিক দিক বিবেচনায় তাকে মুক্তি দেয়া হয়।

আইনমন্ত্রী বলেন, সেই প্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশেই কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে দুটি শর্তসাপেক্ষে মুক্তি দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ ব্যাপারে ইতোমধ্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সুপারিশ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আইনি প্রক্রিয়ায় দুই শর্তে বেগম জিয়ার দণ্ডাদেশ স্থগিত রেখে তাকে মুক্তি দেয়া হবে। ফৌজদারি দণ্ডবিধি ধারা-১০১ এবং উপধারা-০১ মোতাবেক আগামী ৬ মাসের জন্য বেগম খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিত করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

তবে এই সময়ের মধ্যে তিনি বিদেশে যেতে পারবেন না। দেশে থেকেই সব ধরনের চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করতে হবে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সুপারিশ গ্রহণ করলেই যেকোনো সময় তিনি মুক্তি পাবেন, যোগ করেন আনিসুল হক।

মন্ত্রী বলেন, আগামী ৬ মাস খালেদা জিয়ার সব দণ্ডাদেশ স্থগিত থাকবে। পরবর্তীতে এই মেয়াদ বাড়বে কিনা তা পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। আপাতত তিনি দেশের বাইরে যেতে পারবে না এবং বাসায় থেকে চিকিৎসা নিতে পারবেন।

এমএম/পাবলিকভয়েস

মন্তব্য করুন