ইতালিতে করোনা আইন অমান্য করায় ৯বাংলাদেশি আটক, মেয়রের তিরস্কার

প্রকাশিত: ১০:০৭ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১৭, ২০২০
ছবি মেয়র সিনডাকো’র ফেসবুক থেকে নেয়া

করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে জারি করা আইন অমান্য করায় ইতালিতে ৯ বাংলাদেশিকে আটক করেছে পুলিশ। রোববার দুপুরে (স্থানীয় সময় সকাল ৭টা) ইতালির নাপোলির সান জুসেপ্পে ভেসুভিয়ানো এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সর্বশেষ গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৬৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এতে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ৮০৯ জনে।

চিনের পর ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ইতালিতেই সবচে বেশি লক্ষণীয় ছিলো। এমন অবস্থায় দেশটিতে জরুরি অবস্থা এবং বিশেষ আইন জারি করা হয়েছে। মহামারি ঠেকাতে ইতালির সব শহরের প্রবেশদ্বারে সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। এক শহর থেকে অন্য শহরে কাউকে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। এছাড়া মাইকিং করে ঘর থেকে বের না হওয়ার জনগণকে আহ্বান জানানো হচ্ছে।

এই আইন অমান্যকারীদের ২০৬ ইউরো জরিমানা এবং একইসঙ্গে তিন মাস থেকে ২১ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে। এই আইন দেশিটির নাগরিকসহ প্রবাসীদের জন্যও প্রযোজ্য।

স্থানীয় পৌর প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, আটক বাংলাদেশিরা জরুরি প্রয়োজন ও খাদ্যসামগ্রী কিনতে বাইরে বের হয়েছিলেন বলে জানায়। কিন্তু তারা এ ব্যাপারে পুলিশের কাছে কোনো প্রমাণ দিতে পারেননি।

সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী, জরুরি অবস্থার আওতায় কোনো ব্যক্তিকে বাইরে বের হতে হলে সুনির্দিষ্ট কারণ দেখিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমোদন নিতে হবে। কিন্তু যারা আটক হয়েছেন তারা কোনো অনুমোদনপত্র বা কারণ দেখাতে পারেননি। এছাড়া তারা রাষ্ট্রীয়ভাবে নির্দেশিত একে-অপর থেকে এক মিটার দূরত্ব বজায় রাখেননি।

দেশটির পুলিশ জানায়, সরকারি আইন লঙ্ঘন করায় আটক ৯ বাংলাদেশিকে জনপ্রতি ২০৬ ইউরো জরিমানা করা হয়েছে। তারা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কি-না, তা যাচাইয়ের জন্য ১৪ দিন হাসপাতালে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

নাপোলির মেয়র ভিনসেনজো কাতাপানো সিনডাকো ফেসবুক পেজে নয় বাংলাদেশিকে আটকের খবর জানিয়ে তিনি তাদের তিরস্কার করেন।

সিনডাকো ফেসবুকে লিখেন, একটু আগে পৌর পুলিশ ৯জনকে আটক করেছে। এরা কোনো জরুরি কাজের বৈধ প্রমাণপত্র ছাড়া রাস্তায় বেরিয়েছিলো। এইমুহুর্তে প্রধানমন্ত্রী অ্যাক্ট ৬৫০ প্যানাল কোডের অধীনে কোয়ারেন্টাইনে থাকবে।

নিজের পোস্টে মেয়র সিনডাকো ‘এই মানুষগুলোকে কি বুঝতে পারেনি???’ বলে তিরস্কার করেন।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত ইতালির প্রধান শহর পৌরসভার মেয়র ভিনসেনজো কাতাপানো সিনডাকো সার্বক্ষণিক শহরের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন। রোববার রাত ১২টার দিকেও মেয়র সিনডাকো তিন তরুণিকে ভৎর্সনা করেন।

তিন তরুণি গাড়ি নিয়ে রাস্তায় এলোমেলোভাবে ঘুরছিলো উল্লেখ্য করে তিনি বলেন, ‘তিনটি ছোট মেয়ে শহরের চারপাশ ঘুরছে। কোথায় যাচ্ছে? হয়তো বয়ফ্রেন্ড এর কাছে। এরা কি বুঝলো না? এটা কত খারাপ? তাদের মা-বাবও বুঝলো না? আমি এদের পিএম অ্যাক্টে নিতে বলেছি। এদর বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে’।

/এসএস

মন্তব্য করুন