জোড়া লাগানো হয়েছে শিক্ষিকার বিচ্ছিন্ন হওয়া হাত, অপেক্ষা ৭২ ঘটনা

প্রকাশিত: ১০:০৫ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১২, ২০২০

দুর্ঘটনায় উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষিকা সৈয়দা ফাহিমা বেগমের বিচ্ছিন্ন হওয়া হাত জোড়া লাগানো হয়েছে। এখন অপেক্ষা করতে হবে ৭২ ঘন্টা। আগামী ৭২ ঘন্টা পরেই বোঝা যাবে জোড়া লাগানো হাত কাজ করবে কিনা।

আপাতত তার অবস্থা কিছুটা ভালোর দিকে। শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইন্সটিটিউটের চিকিৎসকরা হাতটি জোড়া লাগিয়েছেন। তবে হাতটি আর কাজ করবে কিনা, ৭২ ঘণ্টার আগে সে সম্পর্কে নিশ্চিত করে কিছু বলতে পারছেন না চিকিৎসকরা।

এ বিষয়ে শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইন্সটিটিউটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন বলেন, মঙ্গলবার বিকাল ৫টা থেকে ছয় সদস্যের চিকিৎসক দল একনাগাড়ে রাত পৌনে ১২টা পর্যন্ত ওই শিক্ষিকার অস্ত্রোপচার করেন। বর্তমানে তিনি অবজারভেশনে রয়েছেন। অবস্থা কিছুটা ভালো হলেও ৭২ ঘণ্টা না গেলে কোনো কিছুই নিশ্চিতভাবে বলা যাচ্ছে না।

ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন ইউনিট সূত্র জানায়, শিক্ষিকার কনুইয়ের ওপর থেকে হাত একরকম গুঁড়ো হয়ে গেছে। চিকিৎসকরা হাতটি সংযুক্ত করেছেন ঠিকই, তবে হাতটি সচল হবে কিনা, তা নির্ভর করছে বাধাহীন রক্ত সঞ্চালনের ওপর। আর ওই দুর্ঘটনায় আহত ১৫ শিক্ষার্থী শঙ্কামুক্ত বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

মঙ্গলবার শিক্ষা সফরে যাওয়ার সময় গোপালগঞ্জে দাঁড়িয়ে থাকা একটি ট্রাকের পেছনে ধাক্কা দেয়ায় বাসটিতে থাকা ওই শিক্ষিকার হাত বিচ্ছিন্ন হয় এবং আরও ১৫ শিক্ষার্থী আহত হয়।

এদিকে গতকাল বুধবার স্কুলটিতে কোনো ক্লাস হয়নি বলে জানিয়েছেন একাধিক শিক্ষার্থী ও অভিভাবক।

/এসএস

মন্তব্য করুন