দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের প্রচেষ্টা চলছে: ইশা ছাত্র আন্দোলন ঢ.ম.পূ

প্রকাশিত: ১১:২২ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৯, ২০২০

মতিঝিল আইডিয়াল স্কুলে ছাত্রীদের ওড়না নিষিদ্ধ ও বি-বাড়িয়ায় কাদিয়ানী কর্তৃক মাদরাসায় হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন ঢাকা মহানগর পূর্ব।

আজ ১৯ জানুয়ারি রবিবার রাজধানীর ধোলাইপাড় বাসস্ট্যান্ডে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইশা ছাত্র আন্দোলনের জয়েন্ট সেক্রেটারী জেনারেল এ কে এম আব্দুজ্জাহের আরেফী।

এসময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কে এম আব্দুজ্জাহের আরেফী বলেন, বিশেষ একটা গোষ্ঠী দেশের সংস্কৃতি ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের প্রচেষ্টা করছে। দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে এ ধরনের হঠকারী সিদ্ধান্ত নেয়া হলে দেশ আরো রসাতলে চলে যাবে।

এ দেশ ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা লাভ করেছিল সাম্য মানবিক মর্যাদা ও সামাজিক ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে অতএব সরকারকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে যে দেশে সাম্প্রদায়িক উস্কানিমূলক কোন বিষয় পরিলক্ষিত হলে সঙ্গে সঙ্গে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। সাথে সাথে এদেশের সব ধর্মালম্বী মানুষকে তার ধর্ম পালনে পূর্ন স্বাধীনতা নিশ্চিত ও সহযোগিতা করতে হবে এবং মুসলিম সংখ্যাধিক্য স্মরণ রেখে এদেশের সংস্কৃতি পরিচালনা করতে হবে।

বক্তারা আরো বলেন আমরা দেখে এসেছি ১৯৭৩ সালে প্রতিষ্ঠার পর থেকে আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের বৈশিষ্ট্য ছিল ছাত্ররা টুপি ছাত্রীরা ওড়না-হিজাব পড়ে ক্যাম্পাসে আসতো। যখন থেকে বর্তমান আইডিয়াল স্কুল এন্ড কলেজের নতুন গবর্নিং বডির সভাপতি আবু হেনা মোরশেদ জামান দায়িত্বে এসেছেন, তখন থেকেই তার ব্যাপারে অভিবাবকরা ধর্মীয় হস্তক্ষেপসহ বিভিন্ন ধরনের অভিযোগ করেন। অতএব তাকে দায়িত্ব থেকে অপসারণ করতে হবে।

মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন ঢাকা মহানগর পূর্বের সভাপতি মুহাম্মাদ আক্তারুজ্জামান মাহাদী। মানববন্ধনে আরো বক্তব্য রাখেন শাখার সহ-সভাপতি শেখ মাহবুবুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক সাব্বীর আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক ইউসুফ পিয়াস, প্রশিক্ষণ সম্পাদক এইচ এম মালিক মাহমুদ, প্রচার ও প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম ইমরান সহ নগর ও থানা নেতৃবৃন্দ।

মানববন্ধনে তারা ৪ দফা দাবী পেশ করেন।

১. আগামী ৩১ জানুয়ারী’ ২০২০ তারিখের মধ্যে আইডিয়াল স্কুলের সিদ্ধান্ত বাতিল করতে হবে।
২. এবং অবিলম্বে তাদেরকে জাতির নিকট ক্ষমা চাইতে হবে।
৩. বি’বাড়িয়ায় খতমে নবুওয়াত মাদ্রাসায় কাদিয়ানী কর্তিক হামলায় জড়িতদেরকে অনতিবিলম্বে শাস্তির আওতায় আনতে হবে।
৪. কাদিয়ানীদেরকে সংসদে অমুসলিম (কাফের) ঘোষণার বিল পাশ করতে হবে।

/এসএস

মন্তব্য করুন