মেয়র হলে ১’শত দিনের মধ্যে সিটি কর্পোরেশনে দৃশ্যমান নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করব

প্রকাশিত: ৫:৫২ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১১, ২০২০

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের মেয়র পদপ্রার্থী ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর উত্তর সভাপতি অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ বলেন, চারশত বছরের ঐতিহ্যবাহী ঢাকা আজ শুধুই দূষিত, বসবাসের অযোগ্য ও অপরিকল্পিত নগরই নয়, বরং সবকিছুই লন্ডভন্ড অবস্থা। জনস্বাস্থ্য সিটি করপোরেশনের প্রধান কাজ হলেও এক্ষেত্রে নগরবাসী প্রতারণার শিকার। দূষিত পরিবেশের প্রভাবে ঢাকায় ৭১ শতাংশ মানুষ বিষন্নতায় ভুগছে এবং ৬৮ শতাংশ মানুষ রোগে আক্রান্ত।

মশক নিধন সিটি করপোরেশনের দায়িত্ব হলেও এতে তারা ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে। সিটি করপোরেশনের অবহেলা, দায়িত্বহীনতা, দুর্নীতি ও অকার্যকর ঔষধ ব্যবহারের কারণে ঢাকায় ডেঙ্গু মহামারী আকার ধারণ করেছিল। এখন কিউলিক্স মশার উৎপাতে নগরবাসী অতিষ্ঠ।

তিনি বলেন, ঢাকায় অপরাধপ্রবণতা দিন দিন বেড়েই চলছে। নারী নির্যাতন ও ধর্ষণ উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে। এখন একজন নারীকে ধর্ষণের শংকা নিয়েই বের হতে হয়। নিরাপত্তাহীনতা নিয়েই নগরবাসীকে বেঁচে থাকতে হচ্ছে। অন্যদিকে ঢাকা যানজটে স্থবির ও অচল হয়ে পড়েছে। প্রতিদিন ঢাকায় ৩২ লাখ কর্মঘণ্টা নষ্ট হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করা মেয়রের মূলকাজ হলেও এখানে নাগরিকদের নয়, বরং দুর্নীতিবাজদের সেবা দেয়া হয়। গুটি কয়েক সিন্ডিকেটবাজদের হাতে নগরবাসীর ভাগ্য ছেড়ে দেয়া হয়েছে। এ অবস্থার পরিবর্তনে নগরবাসীকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

নিজের আত্মবিশ্বাস সম্পর্কে ফজলে বারী মাসউদ বলেন, নির্বাচিত হলে ১০০ দিনের মধ্যেই দৃশ্যমান নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করে সিটি করপোরেশনে দৃশ্যমান পরিবর্তন আনা হবে। সকল জঞ্জাল পরিস্কার করে দুর্নীতি, দূষণ ও যানজটমুক্ত নিরাপদ, বাসযোগ্য স্মার্ট ঢাকা গড়ে তোলা হবে।

আজ মধ্য বাড্ডায় গণসংযোগকালে উপরোক্ত কথা বলেন মেয়র প্রার্থী অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ। তিনি আরো বলেন, সিটি কর্পোরেশনের ওয়েবসাইটে পরিচ্ছন্নতা ও মশক নিধনে যে পরিমাণ লোকবল নিয়োগ দেখানো হয়েছে তার কতভাগ প্রকৃতপক্ষে কাজ করছে তা আমাদের বোধগম্য নয়।

তিনি আজ ১১ জানুয়ারী’২০ইং শনিবার প্রচারণার দ্বিতীয় দিনে বিকাল ৩টায় রাজধানীর ভাটারা ও বাড্ডায় গণসংযোগকালে বিভিন্ন পথসভার বক্তব্যে উপর্যুক্ত কথা বলেন। গণসংযোগ কর্মসূচিতে আরও উপস্থিত ছিলেন এ্যাডভোকেট শওকাত আলী হাওলাদার এ্যাডভোকেট শফিক উদ্দিন মিয়া ছাত্রনেতা ইউসুফ আহমদ মানসুর, মুনতাসির আহমদ, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর উত্তর সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি ফরিদুল ইসলাম, ডাঃ মুজিবুর রহমান প্রমুখ।

এমএম/পাবলিকভয়েস

মন্তব্য করুন