অধ্যক্ষকে পানিতে ফেলায় ছাত্রত্ব হারাচ্ছে ৪ শিক্ষার্থী

প্রকাশিত: ৮:৩০ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৫, ২০১৯

রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষকে টেনে হিঁচড়ে পানিতে ফেলের অপরাধে চার শিক্ষার্থীর ছাত্রত্ব বাতিল করা হচ্ছে। তদন্ত কমিটির সুপারিশে ৪ শিক্ষার্থীকে স্থায়ী বহিষ্কারসহ আরও ১৬ জনের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিবে কলেজ প্রশাসন। দোষীরা সবাই রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মী।

সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, চার শিক্ষার্থীকে স্থায়ী বহিষ্কার, পাঁচ শিক্ষার্থীর মূল সনদ আগামী তিন বছর স্থগিত রাখা এবং সাত শিক্ষার্থীকে টিসি (ট্রান্সফার সার্টিফিকেট) দিয়ে অন্য কোনো ইনস্টিটিউটে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। শনিবার (১৪ ডিসেম্বর) বিকালে রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ প্রকৌশলী ফরিদ উদ্দিন সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত করতে রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে রাজনৈতিক কার্যক্রম সম্পূর্ণভাবে বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এছাড়া ছাত্রলীগের টর্চার সেল হিসেবে পরিচিত ইনস্টিটিউটের ১১১৯ নম্বর কক্ষটি ভেঙে ফেলে সেখানে কমনরুম বানানোরও সুপারিশ করা হয়। সিদ্ধান্তগুলো দ্রুত কার্যকরের জন্য এরই মধ্যে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ডে চিঠি দিয়েছে রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট।

ছাত্রত্ব বাতিলের সুপারিশ করা শিক্ষার্থীরা হলেন- অধ্যক্ষকে পুকুরে ফেলে দেওয়ার মূল হোতা ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ২০১৫-১৬ সেশনের কম্পিউটার বিভাগের ৮ম পর্বের শিক্ষার্থী কামাল হোসেন ওরফে সৌরভ, একই সেশনের ইলেকট্রো মেডিক্যাল বিভাগের ৭ম পর্বের শিক্ষার্থী রায়হানুল ইসলাম, ২০১৭-২০১৮ সেশনের ইলেকট্রনিক্স বিভাগের ৫ম পর্বের ছাত্র মুরাদ হোসেন ও ২০১৮-২০১৯ সেশনের মেকানিক্যাল বিভাগের ৩য় পর্বের শিক্ষার্থী সাজিব হোসেন।

আই.এ/

মন্তব্য করুন