সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের নিয়ে রাবিতে ‘একদিন স্বপ্নের দিন’ উদযাপন

প্রকাশিত: ৬:৪৮ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৬, ২০১৯

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দেয়ার উদ্দেশ্যে ‘একদিন স্বপ্নের দিন’ ২০১৯ উদযাপন করেছে নবজাগরণ ফাউন্ডেশন। সার্বজনীন শিশুদিবস উপলক্ষে শুক্রবার দিনব্যাপি সুবিধাবঞ্চিতদের সঙ্গে এভাবে সময় কাটান সংগঠনের শতাধিক স্বেচ্ছাসেবী।

মোট ৩৫৭ জন অংশগ্রহণকারীকে নিয়ে দিনব্যাপি এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। যেখানে ঘোরাঘুরি, মজা আর আনন্দ উদযাপনের মাধ্যমে তাদের সুস্থজীবন ধারার প্রতি আগ্রহী করে তোলার ও চেষ্টা করা হয়। দেশের হতে যাওয়া কর্ণধারদের সঙ্গে দেশের ভবিষ্যৎ কর্ণধারদের মেলবন্ধন সৃষ্টিও তাদের একটি উদ্দেশ্য।

জাতীয় সংগীত পরিবেশন দিয়েই শুরু হয় ‘একদিন স্বপ্নের দিন’। প্রতি দুইজন স্বেছাসেবক এর দায়িত্বে একজন করে সুবিধাবঞ্চিত শিশুকে দেয়া হয় তার দিনটাকে স্বপ্নের মতো করে উপহার দেয়ার জন্য। এরপর বাচ্চাদের আনন্দদানের জন্য নিয়ে যাওয়া হয় রাজশাহীস্থ কামারুজ্জামান চিড়িয়াখানায়। সারাদিনভর শিশুদের সাথে আনন্দ ভাগাভাগিতে মেতে উঠে সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবীরা।

অনুষ্ঠানের উদ্বোধনী বক্তব্যে রাজশাহী-১ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, শিশুদের মৌলিক অধিকার যথাযথভাবে পূরণের মাধ্যমেই গড়ে উঠবে সোনার বাংলা। আর তারই অংশ হিসেবে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের জীবনমান উন্নত করার লক্ষ্যে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে নবজাগরণ ফাউন্ডেশন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র উপদেষ্টা ড.লায়লা আরজুমান বানু,বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড.লুৎফর রহমান, হিসাব বিজ্ঞান ও তথ্য ব্যবস্থা বিভাগের অধ্যাপক ড. রুকসানা বেগম, অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড.মো: ইলিয়াছ হোসেন, শহীদ শামসুজ্জোহা হলের প্রাধ্যক্ষ ড. জুলকার নায়েন, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড.সুলতান মাহমুদ, পরিসংখ্যান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মনিমুল হক, আইন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সাদিকুল ইসলাম প্রমুখ।

বিকেল ৩ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তনের শুরু হয় সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের পারফর্ম করা জমকালো সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা।

এসময় নবজাগরণ ফাউন্ডেশনের সভাপতি এনামুল ইসলাম তুহিন বলেন,আজকের শিশুরাই আগামী দিনের ভবিষ্যৎ ।তাই নবজাগরণ ফাউন্ডেশন শিশুদের উন্নয়নে প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই কাজ করে যাচ্ছে।

সমাপনী বক্তব্যে সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক শরীফুল ইসলাম বলেন,নবজাগরণ ফাউন্ডেশনের’ একদিন স্বপ্নের দিন’ এক অনন্য আয়োজন।সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের সমাজের স্রোতধারায় ফিরিয়ে আনতে নবজাগরণ ফাউন্ডেশন নতুন নতুন পরিকল্পনা নিয়ে এভাবেই এগিয়ে যাবে ।

উল্লেখ্য, ২০১২ সালে কিছু স্বপ্নবাজ তরুণের হাত ধরে যাত্রা হয় নবজাগরন ফাউন্ডেশনের। যার সকল সেচ্ছাসেবক রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। ২০১৪ সালে নবজাগরণ বিদ্যানিকেতন নামে একটি বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করা হয়। যেখানে পথশিশুদের প্রাথমিক শিক্ষা প্রদান করা হয়। সেই সঙ্গে শিশুদের পরিবারে গিয়ে তাদের মৌলিক অধিকার সম্পর্কে সচেতন করা হয়।

আই.এ/

মন্তব্য করুন