তুরস্কের অর্থায়নে জিবুতিতে নির্মিত হলো পূর্ব আফ্রিকার সর্ববৃহৎ মসজিদ

প্রকাশিত: ৫:০৭ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২৯, ২০১৯

তুরস্কের অর্থায়নে জিবুতিতে নির্মিত হয়েছে পূর্ব আফ্রিকার সবচেয়ে বড় মসজিদ। চার বছর আগে শুরু হওয়া মসজিদটির কাজ শেষ হওয়ায় এ মাসেই তা খুলে দেয়া হচ্ছে মুসল্লিদের জন্য। তুর্কি গণমাধ্যম ডেইলি সাবাহ এ খবর দিয়েছে।

খবরে বলা হয়, উসমানীয় খিলাফতের অন্যতম খলিফা দ্বিতীয় আব্দুল হামিদের নামে নির্মিত মসজিদটিতে একসঙ্গে ৬ হাজার মুসল্লির নামাজ আদায় করতে পারবেন। উদ্বোধনের পর এটি হবে পূর্ব আফ্রিকার দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বড় মসজিদ।

তুরস্কের দিয়েনেট ফাউন্ডেশনের (টিভিডি) সহযোগিতায় নির্মিত মসজিদটি উসমানীয় সাম্রাজ্যের স্থাপত্যের অনুকরণে নির্মিত হয়েছে। উসমানীয় স্থাপত্যরীতিতে অঙ্কিত দেয়াল এই মসজিদের অন্যতম আকর্ষণ।

২০১৫ সালে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগানের জিবুতি সফরকালে এই মসজিদটি নির্মাণের কথা শুরু হয়। এসময় জিবুতির প্রেসিডেন্ট ইসমাইল ওমর এরদোগানকে বলেন, তিনি উসমানীয় আদলে তার দেশে একটি মসজিদ দেখতে চাই, যেখানে আজানের মধুর ধ্বনি শোনা যাবে।

জিবুতির রাজধানীতে প্রেসিডেন্ট প্রাসাদের পাশেই সমুদ্র থেকে জেগে ওঠা বিশাল এলাকায় প্রায় ১৩,০০০ স্কোয়ার মিটার জায়গায় নির্মিত হয়েছে দ্বিতীয় আব্দুল হামিদ মসজিদ। ৪৬ মিটার উচ্চতার দু’টি মিনার, ২৭ মিটার উচ্চতার একটি গম্বুজ এবং উসমানীয় স্থাপত্যরীতিতে অঙ্কিত দেয়াল এই মসজিদের অন্যতম আকর্ষণ।

তুরস্কের ননপ্রফিটস পরিচালক মেহমুদ সাবাস পোলাত বলেন, খেলাফতে উসমানীর অবসানের পর এটিই আফ্রিকাতে প্রথম মসজিদ, যেটি খেলাফতে উসমানের কোনো খলিফাকে উৎসর্গ করা হল।

তুরস্কের প্রেসিডেন্সি ফর রিলিয়াস অ্যাফেয়ার্সের (ডিআইবি) অধিভুক্ত টিডিভি। বিদেশের মাটিতে তুরস্কের মসজিদের নির্মাণ কর্মসূচি তত্তাবধান করে আসছে এই সংস্থাটি। কিন্তু অবকাঠামো নির্মাণের অধিকাংশ সরঞ্জাম তুরস্ক থেকেই নিয়ে যাওয়া হয়।

ইসমাঈল আযহার/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন