৫ হাজার পত্রিকা ছাপিয়ে দেখায় দেড় লাখ: তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত: ৯:২৪ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ৮, ২০১৯

পত্রিকার প্রচার সংখ্যা বেশি দেখিয়ে অতিরিক্ত সুবিধা নেওয়ার প্রবণতা বন্ধে নজরদারি বাড়ানোর কথা বলেছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। বৃহস্পতিবার ঢাকায় এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেছেন, মন্ত্রী হয়ে আমি দেখেছি, এমনো পত্রিকা আছে যার সার্কুলেশন ঢাকায় এক হাজার, সারাদেশে পাঁচ হাজার, অথচ সুবিধা নেয়ার জন্য ঘোষণা দেয় দেড় লাখ। ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (ক্র্যাব) বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলছিলেন তথ্যমন্ত্রী।

এ ধরনের পত্রিকাগুলো সুবিধা নেওয়ার জন্য সরকারের তথ্য মন্ত্রণালয়ে প্রচার সংখ্যার এক রকম তথ্য দিলেও কর ফাঁকি দিতে ‘ট্যাক্স অফিসে’ আরেক তথ্য দেয় বলে মন্তব্য করেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, সরকারি দুই দপ্তরে দুই হিসাব চলবে না। তাদের নজরদারি ও শৃঙ্খলায় আনা হবে।

সেখানে সংবাদপত্র ও সংবাদমাধ্যমের কর্মীদের জন্য ঘোষিত নতুন বেতন কাঠামোর (নবম ওয়েজ বোর্ড) বাস্তবায়ন প্রসঙ্গে প্রচার সংখ্যায় অনিয়মের কথা উল্লেখ করেন তিনি।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, নবম ওয়েজবোর্ড বাস্তবায়ন হলে সাংবাদিকরা অনেক উপকৃত হত। তবে মালিকরা অনেকেই এটা করছে না। ডিএফপি থেকে রেট কার্ড নেয়।’ সরকার সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন দেওয়ার সময় এর দর বা ‘রেট’ নির্ভর করে পত্রিকার প্রচার সংখ্যা বা সার্কুলেশনের ওপর। ওয়েজ বোর্ড বাস্তবায়ন করা হয়েছে কি না, সেটাও এক্ষেত্রে দেখা হয়। তাই অনেক পত্রিকা বিজ্ঞাপন ও ভালো ‘রেট’ পাওয়ার জন্য ছাপার সংখ্যা বাড়িয়ে দেখায় এবং ওয়েজ বোর্ড বাস্তবায়নের ঘোষণা দেয়। কিন্তু তাদের ঘোষণার সঙ্গে বাস্তবতার মিল থাকে না বলে অভিযোগ রয়েছে।

আই.এ/

মন্তব্য করুন