উ. কোরিয়ার দুই জেলের হাতে ১৬ সঙ্গী খুন

প্রকাশিত: ৭:৪৯ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৭, ২০১৯

একই নৌকায় থাকা ১৬ জেলেকে খুন করে দক্ষিণ কোরিয়া পালিয়ে গিয়েও শেষরক্ষা হয়নি ২ ব্যক্তির। শনিবার উপকূলীয় সীমান্ত পাড়ি দিয়ে দক্ষিণ কোরিয়া প্রবেশ করলে ওই দুই জেলেকে আটক করে সেখানাকর কর্তৃপক্ষ। পরে তাদের পিয়ংইয়ংয়ের কাছে হস্তান্তর করে সিউল।

জানা গেছে, একই নৌকাতে করে সমুদ্রে মাছ ধরতে গিয়েছিলেন ওই ১৮ জন জেলে। সমুদ্রপথে উত্তর কোরিয়া থেকে দক্ষিণ কোরিয়ার দিকে যাচ্ছিলেন তারা। আর যাত্রার মাঝপথেই ১৬ সঙ্গীকে নির্মমভাবে হত্যা করে ওই দুই জেলে। উত্তর থেকে পালিয়ে যাওয়া ব্যক্তিদের সাধারণত রাজনৈতিক আশ্রয় দিয়ে থাকে দক্ষিণ কোরিয়া।

কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে দক্ষিণ কোরিয়ার বার্তা সংস্থা ইয়োনহাপ জানিয়েছে, স্বীকারোক্তিতে দুজন জানিয়েছে, দুর্ব্যবহারের কারণে গত অক্টোবরে আরও এক ব্যক্তিকে সঙ্গে নিয়ে তারা দুজন জাহাজের ক্যাপ্টেনকে হত্যা করে।

এক্ষেত্রে পালিয়ে আসা দুজন জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি বলে মনে করেছে সিউল। তাদেরকে দলত্যাগী নয় বরং অপরাধী হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে এবং সেই কারণেই ফেরত পাঠানো হয়েছে।

স্থানীয় পুলিশ একজনকে আটক করলে অপর দুজন তাদের নৌকায় করে দক্ষিণ কোরিয়া পালিয়ে আসে। দক্ষিণ কোরিয়ার একত্রীকরণ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, তারা ‘গুরুতর অপরাধীদের’ থাকার অনুমতি দিতে পারে না।

২০ বছর বয়সী দুজনকে দুই কোরিয়ার সীমান্তবর্তী অসামরিক এলাকা পানজুমান দিয়ে উত্তর কোরিয়ার কর্মকর্তাদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

আই.এ/

মন্তব্য করুন