দল ছেড়েছেন মোরশেদ খান; জানেন না মির্জা ফখরুল

প্রকাশিত: ৭:২২ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৬, ২০১৯

ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে দলের প্রাথমিক সদস্য পদসহ সব ধরনের পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন বিএনপি ভাইস চেয়ারম্যান এম মোরশেদ খান। মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) রাতে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে লোক মারফত পদত্যাগপত্র পাঠান তিনি।

বিএনপির দফতরের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেন। এ বিষয়ে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গণমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেন, ‘আমি বিভিন্ন মাধ্যমে মোরশেদ খানের পদত্যাগের বিষয়টি শুনেছি। কিন্তু তার পদত্যাগপত্র আমি এখনও পাইনি।’

বিএনপি সূত্র বলছে, সর্বশেষ একাদশ সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম-৮ আসনে মনোনয়ন না পাওয়ায় দলের প্রতি কিছুটা মনঃক্ষুণ্ন ছিলেন মোরশেদ খান। এর বাইরে চট্টগ্রামে দলের রাজনীতিতে তার অনুসারীদের বিভিন্ন পদ থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। এ নিয়ে চরম ক্ষুব্ধ ছিলেন তিনি। দলের হাইকমান্ডকে জানানোর পরও কোনও উদ্যোগ না নেওয়ায় শেষ পর্যন্ত তিনি পদত্যাগের পথ বেছে নিতে বাধ্য হন।

বিএনপি দফতর সূত্র জানায়, মোরশেদ খানের ব্যক্তিগত সহকারী আতাউল মঙ্গলবার রাতে নয়াপল্টনের কার্যালয়ে পদত্যাগপত্র নিয়ে যান। এসময় দফতর প্রধান রুহুল কবির রিজভী আহমেদ স্কাইপিতে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সঙ্গে বৈঠকে ব্যস্ত ছিলেন।

মোরশেদ খান আরও বলেন, ‘রাজনীতির অঙ্গনে আমার পদচারণা দীর্ঘকালের। কিন্তু দেশের রাজনীতি এবং দলের অগ্রগতিতে নতুন কিছু সংযোজন করার মতো সঙ্গতি নেই। তাই ব্যক্তিগত কারণহেতু আমার উপলব্ধি সক্রিয় রাজনীতি থেকে অবসর নেওয়ার এখনই সময়।

তিনি বলেন, বহুবিধ বিচার-বিশ্লেষণ শেষে আমি অবিলম্বে আজ (মঙ্গলবার) থেকে বিএনপির রাজনীতি থেকে অবসর নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এ অবস্থায় এবং স্বাভাবিক নিয়মে বিএনপির প্রাথমিক সদস্যপদ প্রত্যাহারসহ বর্তমানে অলঙ্কৃত ভাইস চেয়ারম্যানের পদ থেকেও পদত্যাগ করছি।’

আই.এ/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন