মুক্তিযোদ্ধা হয়েও দেশের মাটিতে মরতে পারেনি খোকা, সরকারকে এর জবাব দিতে হবে

প্রকাশিত: ১১:৩৫ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৪, ২০১৯

ইসমাঈল আযহার; সিনিয়র রিপোর্টার

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নায়েবে আমীর আল্লামা সৈয়দ মোহাম্মাদ ফয়জুল কারীম বলেন, একজন মুক্তযোদ্ধা হিসেবে দেশের মাটিতে মরার অধিকার ছিল ঢাকার সাবেক মেয়র ও বিএনপি নেতা সাদেক হোসেন খোকার। সাদেক হোসেন খোকা কেন দেশের মাটিতে মরতে পারল না এই জবাব সরকারকে দিতে হবে।’ সোমবার (৪ নভেম্বর) ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ রাজাপুর উপজেলা শাখা কর্তৃক আয়োজিত ওয়ার্ড প্রতিনিধি সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

ফয়জুল কারীম বলেন, ‘এই সরকার জনগণের সরকার নয়, এই সরকার বাংলাদেশের সরকার নয়। বরং এই সরকার ভিন্ন এক দলের, ভিন্ন এক দেশের ইশারায় তাদের সরকার পরিচালনা করে। আজ হোক আর কাল হোক জনগণ সাদেক হোসেন খোকাকে বাংলাদেশে মরতে না দেওয়ার জবাব নেবেই।’

এসময় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অদ্যক্ষকে ছাত্রলীগের কর্মীদের পানিতে ফেলে দেওয়া নিয়েও কথা বলেছেন সৈয়দ ফয়জুল কারীম। তিনি বলেন, ‘রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অদ্যক্ষকে ১৫ ফিট পানিতে নিক্ষেপ করা হয়েছে কিন্তু আন্দোলন করা হচ্ছে না। কারণ, তার পানি নিক্ষিপ্ত অদ্যক্ষের মুখে দাঁড়ি, তার মাথায় টুটি, তিনি একজন মুসলমান, তাই কেউ প্রতিবাদ করছে না। আজ যদি তিনি অমুসলমি হতেন, মুখে দাঁড়ি আর মাথায় টুপি না থাকতো, তাহলে সবাই আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়তো।’

তিনি বলেন, ‘আজ সহিংসতা মুসলিমদের বিরুদ্ধে। আজ কটূক্তি হচ্ছে নবীর বিরুদ্ধে। ষড়যন্ত্র চলছে ইসলামের বিরুদ্ধে। রাসুল প্রেমিকদের হুংকার দিতে হবে। ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। আন্দোলন ও সংগ্রাম করতে হবে।’

ফয়জুল করীম বলেন, ‘এদেশের প্রত্যেকটা নাগরিকের তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। তিনি বলেন, আমি মনে করি প্রত্যেকটা নাগরিকের অধিকার ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য দেশে ইসলামী আন্দোলনের বিকল্প শক্তি নেই। অতএব ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ যতক্ষণ পর্যন্ত ক্ষমতায় না যাবে বাংলাদেশের মানুষ তাদের অধিকার ফিরে পাবে না।’

আইএবি রাজাপুর উপজেলা সভাপতি হেদায়েতুল্লাহ ফয়েজীর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, আইএবি’র প্রেসিডিয়াম সদস্য আল্লামা নুরুল হুদা ফয়েজী, ঝালকাঠী জেলা সভাপতি হাফেজ আলমগীর হোসাইন। এছাড়াও জেলা, উপজেলা ও ওয়ার্ড শাখার বিভিন্ন স্তরের কর্মী ও নেতৃবৃন্দ।

আই.এ/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন