বিদেশ যাত্রার নিষেধাজ্ঞায় রয়েছেন যারা

প্রকাশিত: ৮:৩৯ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ৩১, ২০১৯

চলমান ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে দুই সংসদ সদস্য, ব্যাংক পাড়ায় বহুল আলোচিত একটি ব্যাংকের চাকরিচ্যুত এমডিসহ সরকার দলীয় বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের শীর্ষ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ রয়েছেন বিদেশ যাত্রায় নিষেধাজ্ঞার তালিকায়। ৩৩ জনের মধ্যে প্রথমে ২২ জন এবং গতকাল আরো ১১ জনের বিরুদ্ধে এ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। বিদেশ যাত্রায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বিদেশ যাত্রায় নিষেধাজ্ঞা হওয়া প্রথম ২২ জনের মধ্যে রয়েছেন : চট্টগ্রামের সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের হুইপ সামশুল হক চৌধুরী ও ভোলা-৩ আসনের সংসদ সদস্য নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন। তালিকাভুক্ত অন্যরা হলেন : এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও ব্যাংক পাড়ার রহস্য পুরুষ প্রশান্ত কুমার হালদার, গ্রেফতার হওয়া যুবলীগ নেতা এস এম গোলাম কিবরিয়া শামীম ওরফে জি কে শামীম, মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত নেতা খালেদ মাহমুদ ভূইয়া, মোহামেডান ক্লাবের ডিরেক্টর ইনচার্জ মো: লোকমান হোসেন ভূইয়া, ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট এবং তার সহযোগী এনামুল হক আরমান।কলাবাগান ক্রীড়াচক্রের সভাপতি মোহাম্মদ শফিকুল আলম (ফিরোজ), অনলাইন ক্যাসিনোর হোতা সেলিম প্রধান এবং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাবিবুর রহমানের (মিজান) বিদেশ যাত্রায় নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে।

নিষেধাজ্ঞার তালিকায় আরো রয়েছেন : গেণ্ডারিয়া থানা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি এনামুল হক এনু ও তার ভাই গেণ্ডারিয়া থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক রুপন ভূইয়া, কেন্দ্রীয় যুবলীগের বহিষ্কৃত দফতর সম্পাদক কাজী আনিছুর রহমান ও তার স্ত্রী সুমি রহমান, লোকমান হোসেন ভূইয়ার স্ত্রী নাবিলা লোকমান, গণপূর্ত অধিদফতরের সাবেক প্রধান প্রকৌশলী মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম, সাবেক অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মো: আব্দুল হাই, ওয়ার্ড কাউন্সিলর এ কে এম মমিনুল হক সাঈদ।

এ ছাড়া এনামুল হকের সহযোগী ওয়ান্ডারার্স ক্লাবের কর্মচারী আবুল কালাম আজাদ (আজাদ রহমান), রাজধানীর কাকরাইলের জাকির এন্টারপ্রাইজের মালিক মো: জাকির হোসেন ও সেগুনবাগিচার শফিক এন্টারপ্রাইজের মালিক মো: শফিকুল ইসলামের বিদেশ যাত্রায় নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। গতকাল নতুন করে বিদেশ যাত্রায় নিষেধাজ্ঞা হওয়া ১১ জনের মধ্যে রয়েছেন : গণপূর্ত অধিদফতরের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী উৎপল কুমার দে, নির্বাহী প্রকৌশলী স্বপন চাকমা, মোহাম্মদ শওকত উল্লাহ, মোহাম্মদ ফজলুল হক, আব্দুল কাদের চৌধুরী, মো: আফসার উদ্দিন, মো: ইলিয়াস আহমেদ, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী আব্দুল মোমেন চৌধুরী, মো: রোকন উদ্দিন, সিনিয়র সহকারী মুমিতুর রহমান এবং কর্মকর্তা সাজ্জাদুল ইসলাম।

প্রসঙ্গত, ১৮ সেপ্টেম্বর ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান শুরু করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। এর পরপরই দুদক তফসিলভুক্ত অবৈধ সম্পদের অপরাধ খতিয়ে দেখতে গত ৩০ সেপ্টেম্বর অনুসন্ধানের কাজ শুরু করে। সংস্থাটির পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেনের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের টিম অনুসন্ধানের দায়িত্ব পালন করছে। টিমের অপর সদস্যরা হলেন : উপপরিচালক মো: জাহাঙ্গীর আলম, সালাউদ্দিন আহমেদ, গুলশান আনোয়ার প্রধান, সহকারী পরিচালক মামুনুর রশীদ চৌধুরী ও মোহাম্মদ নেয়ামুল আহসান গাজী।

মুহসিন/

আরও পড়ুন  ৩৩ জনের বিদেশ যাত্রায় নিষেধাজ্ঞা

মন্তব্য করুন