ভোলা ট্রাজেডি: দোহায় ‘কাতার মাজলিসুল উলামা’র প্রতিবাদ সমাবেশ

প্রকাশিত: ৫:৫৯ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ২৯, ২০১৯

ভোলায় বিশ্বনবী মুহাম্মদ সা.-কে অবমানবার প্রতিবাদে তাওহিদি জনতার ওপর গুলি চালিয়ে চারজনকে হত্যা ও শতাধিককে আহত করায় তীব্র নিন্দা জানিয়ে প্রতিবাদে সমাবেশ করেছে ‘কাতার মাজলিসুল উলামা’।

দোহার ফানার মিলনায়তনে স্থানীয় সময় শুক্রবার এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

শায়েখ নুরুল হক (ইমাম ও খতিব কাতার ধর্ম মন্ত্রণালয়) এর সভাপতিত্বে মাওলানা আব্দুল বারীর পরিচালনায় কারী নূর মুহাম্মদ এর তেলাওয়াতের মাধ্যমে সমাবেশ অনুষ্ঠান শুরু হয়।

এসময় সংগঠনটির পক্ষ থেকে ভোলা মুসলিম ঐক্যের ছয় দফা দাবির সাথে মিল রেখে ‘কাতার মাজলিসুল উলামা’র পক্ষ থেকে ৬ দফা দাবি উপস্থাপন করেন মজলিসে ইত্তেহাদুল মুসলিমীন কাতারের সেক্রেটারি জেনারেল মাওলানা মুশাহিদুর রাহমান।

এতে বক্তব্য রাখেন মজলিসে ইত্তেহাদুল মুসলিমীন কাতারের সভাপতি মাওলানা ফরীদ আহমাদ, মার্কাযুদ দাওয়াতুল হকের সাবেক সভাপতি মাওলানা লুৎফুর রাহমান, মার্কায দাওয়াতুল হকের সভাপতি মাওলানা ওবাইদুল্লাহ, বিএনপির কাতার শাখার সেক্রেটারী শরীফুল সাজু, সাংবাদিক ফোরাম কাতারের সভাপতি জনাব আমীনুল হক, মাওলানা এমদাদুল্লাহ, মাওলানা ফখরুল হুদা, মাওলানা সিরাজুল ইসলাম, মাওলানা ইউসুফ ইছমাইল ও মাওলানা নুরুল আনোয়ার প্রমুখ।

মাজলিসুল উলামা কাতারের দাবিসমূহ:

১. ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে মহানবী হযরত মুহাম্মদ সা. ও আল্লাহকে নিয়ে কটূক্তিকারী বিপ্লব চন্দ্র শুভ’র সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

২. পুলিশের গুলিতে নিহত শহীদদের ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।

৩. পুলিশের গুলিতে আহতদের সুচিকিৎসা নিশ্চিত করতে হবে।

৪. নির্বিচারে গুলি বর্ষণকারী অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে হবে।

৫. গ্রেপ্তারকৃত তৌহিদী জনতার সদস্যদের নিঃশর্ত মুক্তি ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করতে হবে।

৬. উগ্র হিন্দুত্ববাদী, সংগঠন ইসকন সাম্প্রদায়িক বিভেদ সৃষ্টি করতে চায়। তাই ইসকনের সকল কার্যক্রম বন্ধ করতে হবে।

/এসএস

মন্তব্য করুন