আগেভাগেই শুরু ২০২০ সালের গ্রন্থমেলার প্রস্তুতি

প্রকাশিত: ৮:২৮ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৪, ২০১৯

ইসমাঈল আযহার: ২০২০ সালের মেলার জন্য বেশ আগেভাগেই প্রস্তুতি শুরু করেছে বাংলা একাডেমি। ইতোমধ্যেই মেলা পরিচালনা কমিটির সভায় মেলার নীতিমালার চূড়ান্ত হয়েছে। সেসঙ্গে মেলার স্টল বরাদ্দের জন্য শুক্রবার (২৫ অক্টোবর) গণমাধ্যমে বিজ্ঞাপন দেবে বাংলা একাডেমি।

আগামী ২৭ ডিসেম্বরের মধ্যে মেলার সীমানা চূড়ান্ত করা হবে। আর ১ জানুয়ারি মেলার স্টল বরাদ্দের লটারি অনুষ্ঠিত হবে জানা গেছে। পরের দিন স্টল বরাদ্দের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করার পর শুরু হবে সজ্জার কাজ। যা চলবে ২৪ জানুয়ারি পর্যন্ত। ২৫ জানুয়ারির মধ্যে স্টল সজ্জার কাজ শেষ করতে হবে।

মেলা পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব ও মেলা আয়োজক প্রতিষ্ঠান বাংলা একাডেমির পরিচালক ড. জালাল আহমেদ বলেন, ২০১৯ সালের মত ২০২০ সালের গ্রন্থমেলার নকশা ও সজ্জার দায়িত্বে রয়েছেন এনামুল করিম নির্ঝর। প্রাথমিক নকশা ইতোমধ্যেই করা হয়েছে।

এবারের মেলায় আগতরা সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ছবিরহাট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) টিএসসি চত্বর এবং বাংলা একাডেমির বিপরীত পাশ দিয়ে প্রবেশ করতে পারবেন। সবমিলিয়ে ১৩টি প্রবেশদ্বার দিয়ে মেলায় প্রবেশ করা যাবে। তবে মেলার পরিসর ২০১৯ সালের থেকে বাড়ছে না।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের পূর্ব পাশ থেকে সরে গিয়ে ২০২০ সালের মেলা অনুষ্ঠিত হবে পশ্চিম পার্শ্বে। ফলে উদ্যানের ছবিরহাট থেকে শুরু হয়ে মেলা অনুষ্ঠিত হবে তিন নেতার মাজার প্রাঙ্গণ পর্যন্ত। বৃহস্পতিবার (২৪ অক্টোবর) গণমাধ্যমকে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন মেলা পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব ও মেলা আয়োজক প্রতিষ্ঠান বাংলা একাডেমির পরিচালক ড. জালাল আহমেদ।

সরকার ঘোষিত মুজিববর্ষ উপলক্ষে ২০২০ সালের গ্রন্থমেলা উৎসর্গ করা হচ্ছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। যার ছোঁয়া থাকবে মেলার সজ্জায়, বইয়ের পাতায়। ইতোমধ্যেই প্রণীত মেলার নীতিমালায় এ বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করেছে মেলা পরিচালনা কমিটি।

জালাল আহমেদ বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানের জন্য সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের পূর্ব পাশে নভেম্বর থেকে মার্চ পর্যন্ত কোনো আয়োজন করা সম্ভব নয়। সেদিক বিবেচনা করে এবারের মেলা উদ্যানের পশ্চিম পার্শ্বে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। ইতোমধ্যেই ডিজিটাল সার্ভের কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

আই.এ/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন