মহানবী স. কে কটুক্তি করার প্রতিবাদ মিছিলে পুলিশ-জনতা সংঘর্ষ : শহীদের সংখ্যা ৩

প্রকাশিত: ২:৪৮ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২০, ২০১৯

মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) কে কটুক্তি এবং আল্লাহকে নিয়ে বিদ্রুপ করার প্রতিবাদে এবং কটূক্তিকারীর সর্বোচ্চ শাস্তি ফাঁসির দাবিতে ভোলা জেলার বোরহানউদ্দীন থানায় আয়োজিত আজকের বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল করেছে বোরহানউদ্দিনের স্থানীয় তৌহিদী জনতা।বিক্ষোভ সমাবেশে পুলিশের সাথে দফায় দফায় সংঘর্ষে তিনজন শাহাদাতবরণ করেছেন ও অর্ধশত আহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন। আহতদের অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলেও জানা গেছে।

নিহতদের মধ্যে দুজন হলেন- মাহফুজুর রহমান ও মিজান। মাহফুজ বোরহানউদ্দিন পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের সাবেক কমিশনার মিরাজ পাটোয়ারীর ভাই। আর একজনের নাম পাওয়া যায়নি। এছাড়াও বোরহান উদ্দীন আলিয়া মাদরাসার আরবি প্রভাষক হাবিবুর রহমান জাজেরী গুলিবীদ্ধ হয়ে আশঙ্কাজনক অবস্থায় আছেন। অপরদিকে স্থানীয় অনেকে জানিয়েছেন নিহতের সংখ্যা আরও বেশি হতে পারে।

জানা যায়, আল্লাহ ও মহানবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে নিয়ে ফেসবুক মেসেঞ্জারে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্যকারী বিপ্লব চন্দ্র শুভর শাস্তির দাবিতে বোরহানউদ্দিনে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ সমাবেশ এর ডাক দিয়েছিলো স্থানীয় আলেম ওলামা সহ স্থানীয় মুসল্লিগণ। আজ রোববার বেলা ১১টায় সমাবেশের সময় অনুসারে সকাল ৯.৩০মিনিট এর দিকে বোরহানউদ্দিন ঈদগাহ ময়দানে অনেকেই এসে জড়ো হন। তবে পুলিশ সময়ের আগেই সভা শেষ করে দিতে বললে স্থানীয় জনগণ ক্ষুব্ধ হয়ে উঠে এবং সংঘর্ষ সৃষ্টি হয়।

তবে পুলিশের বক্তব্যে জানা গেছে, মিছিলের আগে সেখানে ভোলা জেলা পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার, বরিশাল বিভাগীয় অতিরিক্ত পুলিশ ডিআইজি মোঃ এহসান সহ প্রশাসনের লোকজন উপস্থিত হন। তারা জনগণকে কে লক্ষ্য করে তাদের সমাবেশ শেষ করে দিতে বলেন। কিন্তু বিক্ষুব্ধ জনতা ও মুসল্লিরা ক্ষোভ প্রকাশ করে অতি দ্রুত শাস্তির দাবিতে মিছিল দিতে থাকে। তখন তারা পূর্ব নির্ধারিত সিদ্ধান্ত মতে প্রতিবাদ মিছিল করতে যায় এবং পুলিশও কঠোর অবস্থানে যায় এবং উত্তেজিত জনতাকে লক্ষ করে গুলি ছুঁড়ে।

এতে করে পুলিশ ও স্থানীয় মুসল্লিদের মধ্যে সংঘর্ষ সৃষ্টি হয়। ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার  এক পর্যায়ে পুলিশ গুলি চালালে প্রায় অর্ধশতাধিক মুসল্লি/ছাত্র আহত হয়। পরবর্তিতে হাসপাতালে নেওয়ার পর দুজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়। অনেকের অবস্থা খুবই আশংকাজনক বলেও জানা গেছে। এছাড়া একজন পুলিশও গুরুতর জখম বলে খবর পাওয়া গেছে। তবে এ বিষয়ে পুলিশের বক্তব্য প্রকাশ হওয়ার পর আরও পরিস্কার তথ্য পাওয়া যাবে। তবে এ ঘটনায় কোন উপরমহলের ইন্ধন রয়েছে বলেই অনেকের ধারণা।

প্রসঙ্গত : ফেসবুক মেসেঞ্জারে মহানবী স. ও আল্লাহকে নিয়ে কটুক্তি করার অভিযোগ এনে বিপ্লব চন্দ্র শুভ নামের এক ব্যক্তির উপর ক্ষোভ প্রকাশ করে আসছেন স্থানীয় মুসলিম তৌহিদী জনতা। তার বিচারের দাবি নিয়ে গত কয়েকদিন ধরেই স্থানীয় জনতা মিছিল, প্রতিবাদ চালিয়ে আসছে।

মন্তব্য করুন