সিরিয়ায় যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয়েছে তুরস্ক

প্রকাশিত: ৫:৩৬ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৮, ২০১৯

যুক্তরাষ্ট্রের আহ্বানে তুরস্ক থেকে এমন ইতিবাচক সাড়া দেওয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) তুর্কি প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ানের সঙ্গে সাক্ষাতের পর এক সংবাদ সম্মেলনে যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স এসব কথা বলেন।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে যুদ্ধবিরতির ব্যাপারে একমত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও তুরস্ক। একটি নিরাপদ অঞ্চল প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে অভিযান স্থগিত করেছে আঙ্কারা। কুর্দি বিদ্রোহীদের এলাকাটি ছেড়ে যেতে ১২০ ঘণ্টার সময়ও বেধে দেওয়া হয়েছে। তারা এসময়ের মধ্যে জায়গাটি খালি করে দিবেন।

এ সময়ে সিরিয়ায় অপারেশন পিস স্প্রিং নামের তুর্কি সামরিক অভিযান স্থগিত থাকবে। এর আগে এরদোয়ান-পেন্স বৈঠকের পর টুইটারে দেওয়া এক পোস্টে এ নিয়ে কথা বলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ট ট্রাম্প বলেন, তুরস্কের কাছ থেকে খুব চমৎকার একটি সংবাদ পেতে যাচ্ছি। শিগগিরই যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী সংবাদ সম্মেলন করবেন।

এর আগে এরদোয়ান-পেন্স বৈঠকের পর টুইটারে দেওয়া এক পোস্টে এ নিয়ে কথা বলেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এতে তিনি জানান, তুরস্কের কাছ থেকে শিগগিরই চমৎকার খবর আসতে যাচ্ছে।টুইটে ট্রাম্প বলেন, দুর্দান্ত খবর। শিগগিরই যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী সংবাদ সম্মেলন করবেন। ধন্যবাদ এরদোয়ান। লাখ লাখ জীবন রক্ষা পাবে।

তবে এ বিষয়টি জানার পর সমালোচকরা বলছেন, এই সংবাদটি তুরস্ককে সিরিয়ায় অভিযান পরিচালনার ‘সবুজ সংকেত’। উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ৯ অক্টোবর তুরস্কের সীমান্তবর্তী সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় এলাকা থেকে সিরিয়ার কুর্দি বিদ্রোহীদের উৎখাতে অভিযান শুরু করে তুরস্ক। তবে আঙ্কারা বলছে, তুরস্কে আশ্রয় নেওয়া ২০ লাখেরও বেশি শরণার্থীকে পুনর্বাসনের জন্য সেখানে তারা একটি সেফ জোন গড়ে তুলতে চায়।আল জাজিরা।

আরএম/পাবলিকভয়েস

মন্তব্য করুন