‘বাকস্বাধীনতা’ সমুন্নত রাখতে জোর দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত

প্রকাশিত: ৯:৩৫ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১১, ২০১৯

পাবলিক ভয়েস:  বুয়েটছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডে দুঃখ প্রকাশ করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলার। আর্ল মিলার মত প্রকাশের স্বাধীনতা সমুন্নত রাখার ওপর জোরও দিয়েছেন। আবরার হত্যাকাণ্ডের পূর্ণ তদন্তের মাধ্যমে দোষিদের শাস্তিও চেয়েছেন তিনি। বাংলাদেশের এই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের হত্যাকাণ্ডে জাতিসংঘ ও যুক্তরাজ্যের নিন্দা জানানোর পর বৃহস্পতিবার যুক্তরাজ্যের রাষ্ট্রদূতের বিবৃতি আসে।

আর্ল মিলার বলেন, ‘বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আমি হতবাক ও মর্মাহত। মত প্রকাশের স্বাধীনতা যেকোন গণতন্ত্রের মৌলিক অধিকার। ‘এই ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্তের দাবি তোলা সকল কণ্ঠস্বরের সঙ্গে আমরা একাত্ম ও তার পরিবারের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানাচ্ছি।’

প্রধানমন্ত্রীর সাম্প্রতিক সফরে ভারতের সঙ্গে স্বাক্ষরিত চুক্তির সমালোচনা করে ফেইসবুকে লেখার পর আবরারকে বুয়েট ছাত্রলীগের একদল নেতা-কর্মী ডেকে নিয়ে নির্যাতন করে। এতে তার ‍মৃত্যু হয়। এই হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদ উঠেছে বাংলাদেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে; বুয়েট শিক্ষার্থীরাও আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতোমধ্যে আবরার হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের শাস্তি নিশ্চিতের নির্দেশ দিয়েছেন। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ভিন্ন মতের জন্য কাউকে খুন কোনোভাবে গ্রহণযোগ্য নয়।

রবিবার ( ৬ অক্টোবর) রাত ২টার দিকে বুয়েটের শের-ই-বাংলা হলের সিঁড়ি ঘর থেকে তড়িৎ কৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ওই হলের শিক্ষার্থীদের বরাত দিয়ে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয় সন্ধ্যা ৭টার দিকে আবরারকে কয়েকজন ডেকে নিয়ে যায়। পরে, রাত ২টার দিকে হলের দ্বিতীয় তলার সিঁড়িতে তার মরদেহ পাওয়া যায়। ২০১১ নম্বর কক্ষে রাত ৯টা থেকে ২টা পর্যন্ত বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদকে নির্যাতন করা হয়।

আই.এ/

মন্তব্য করুন