‘ইসলামী হুকুমত কায়েমের নেতৃত্বে ইসলামী ছাত্র মজলিসকে ভুমিকা রাখতে হবে’

প্রকাশিত: ৪:৪৩ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯
অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক

‘আগামী দিনের ইসলামী কায়েমের নেতৃত্বে ইসলামী ছাত্র মজলিসকে দৃঢ় ভুমিকা রাখতে হবে। ছাত্র মজলিসের পথচলায় দূরন্ত গতিতে আমি আশাবাদী। আগামী দিনে ছাত্র মজলিস ইসলামী হুকুমত কায়েমে নেতৃত্বের ভুমিকা পালন করবে’।

রাজধানীর গুলিস্তানস্থ কাজী বশির মিলনায়তনে দুইদিন ব্যাপী বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র মজলিসের কেন্দ্রীয় সদস্য সম্মেলন ১৯’ এর উদ্বোধনী দিনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন, খেলাফত মজলিসের আমীর অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক।

অধ্যক্ষ ইসহাক বলেন, আজ আমার বিরানব্বই বছর বয়সে তোমাদের উৎসাহ-উদ্দিপনা দেখে মনে হয় আমার বয়স এখনো মাত্র চল্লিশ বছর। তোমাদের কর্মদ্দেীপনায় আমি উজ্জিবিত। তোমরা এগিয়ে যাও। আগামী দিনে তোমরাই এদেশে ইসলামী হুকুমত কায়েমে নেতৃতত্ব দিবে।

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র মজলিসের কেন্দ্রীয় সভাপতি ইলিয়াস আহমদ এর স্বাগত বক্তব্যের মাধ্য দিয়ে শুরু হওয়া সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, খেলাফত মজলিসের নায়েবে আমীর মাওলানা সাখাওয়াত হোসাইন, মাওলানা আব্দুল বাসেত আযাদ, মাওলানা সৈয়দ মুজিবুর রহমান, মহাসচিব ড. আহমদ আব্দুল কাদের, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা শফিক উদ্দিন, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী, যুগ্মমহাসচিব এডভোকেট মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসাইন, শেখ গোলাম আসগর, মুহাম্মদ মুনতাসির, সাংগঠনিক সম্পাদক ড. মোস্তাফিজুর রহমান ফয়সাল, ঢাকা বিশ্ব বিদ্যালয়ের মাস্টার্স ব্যাচ ম্যানেজমেন্ট ডিরেক্টর ড. মুজাহিদুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় অফিস ও প্রচার সম্পাদক অধ্যাপক মুহাম্মদ আবদুল জলিল, প্রফেসর গোলাম মহীউদ্দিন, আলহাজ্ব শেখ গোলাম আসগর প্রমুখ।

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র মজলিস

সারাদেশ থেকে আগত কর্মী সমর্থক ও নেতৃবৃন্দ

এসময় বক্তারা বলেন, আমরা আজ চরম ক্রান্তিলগ্ন অতিক্রম করছি। আমাদের ইতিহাস-ঐতিহ্য, সংস্কৃতি, সমাজ, অর্থনীতি, জন অধিকার, দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব আজ হুমকির মুখে। ইসকনের উগ্র হিন্দুত্ববাদী সংগঠনসহ মতো বিভিন্ন স্বার্থান্বেষী কুচুক্রি মহলেরর নানারকম ষড়যন্ত্র আমাদের জাতীয় নিরাপত্তাকে হুমকির মুখে ঠেলে দিছে। এমতবস্থায় সরকারের নির্লজ্জ নাতজানু ভুমিকা দেশের মানুষকে শংকার মধ্যে ফেলে দিয়েছে।

দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষায় সরকারের সোচ্চার ভুমিকা প্রত্যাশা করে বক্তারা আরো বলেন, আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি দিন দিন এমন পর্যায়ে যাচ্ছে যা সমাজব্যবস্থাকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। খুন, ধর্ষণ, হত্যা, গুম, বিরোধী মত দমনের রাজনীতির কারণে ক্রমেই অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরি হচ্ছে। ভোটার বিহীন নির্বাচনের মাধ্যমে সরকার দেশের মানুষের অধিকার খর্ব করেছে। একছত্র পেশি শক্তির কারণেই দেশে আজ অরাজকতা হচ্ছে। বক্তারা সরকারকে অবিলম্বে একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে নির্বাচিত সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তরের আহ্বান জানান।

দেশের এই ক্রান্তিলগ্নে বাংলাশে ইসলামী ছাত্র মজলিসকে অগ্রণি ভুমিকা পালনের আহ্বান জানিয়ে বক্তারা বলেন, চরিত্র গঠন, জ্ঞান অর্জন ও সমাজ বিপ্লবের স্লোগান নিয়ে এগিয়ে চলা প্রত্যেকটা কর্মীকে দীপ্ত শপথ নিয়ে ময়দানে কাজ করতে হবে। দেশ গঠনে সকলকে ঐক্যবদ্ধ ভুমিকা পালন করতে হবে।

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র মজলিস

#র‌্যালী

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র মজলিসের সেক্রেটারী জেনারেল মনসুরুল আলম মনসুরের সঞ্চালনায় এতে আরো বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র মজলিসের সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি মুফতী মোহাম্মদ হোযাইফা, প্রভাষক মোহাম্মদ আব্দুল করিম, মাওলানা রুহুল আমিন সাদী, তাওহীদুল ইসলাম তুহিন, এডভোকেট মাওলানা শায়খুল ইসলাম, প্রকৌশলী আবদুল হাফিজ খসরু, মাওলানা আজীজুল হক প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

সম্মেলনের উদ্বোধনী পর্ব শেষে র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি কাজী বশির মিলনায়তন থেকে শুরু হয়ে জাতীয় মসজিদ বাইতুল মোকাররমের দক্ষিণ গেইটে গিয়ে শেষ হয়।

/এসএস

মন্তব্য করুন