কাল ছাত্র মজলিসের সদস্য সম্মেলন; উৎসব মুখর পরিবেশ সারাদেশে

প্রকাশিত: ৯:৪৮ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯

আগামী ২০ ও ২১ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র মজলিসের ২দিন ব্যাপি কেন্দ্রীয় সদস্য সম্মেলন। এ সম্মেলন উপলক্ষে সংগঠনের তৃণমুল পর্যায়ের নেতা-কর্মীদের মধ্যে উৎসব মুখর পরিবেশ বিরাজ করছে। দেশ-বিদেশে ছড়িয়ে থাকা সংগঠনের প্রাক্তন ও বর্তমান নেতা-কর্মীদের মাঝে বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। সম্মেলনে অংশ নিতে প্রবাসীরা দেশে আসা শুরু করেছেন।

সংগঠনের সর্বোচ্চ স্তর হচ্ছে সদস্য। আর প্রতি বছরই রাজধানীতে সদস্য সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে সদস্যদের প্রত্যক্ষ ভোটেই নির্বাচিত হন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি। কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি পরিষদের সদস্যদের মধ্যে থেকে পরিষদ সদস্যদের মতামতের ভিক্তিতে সেক্রেটারী জেনারেল মনোনীত করা হয়। সদস্য সম্মেলনে একমাত্র সদস্যরাই যোগদানের সুযোগ পান। কিন্তু এবার দু’দিনব্যাপী এ সম্মেলনের প্রথমদিন ২০ সেপ্টেম্বর শুক্রবার রাজধানীর কাজি বশীর মিলনায়তনে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে শুরু হবে উন্মুক্ত অনুষ্ঠান। শুক্রবারের প্রথম দিনের উদ্বোধনী উন্মুক্ত অনুষ্ঠানে যে কারো অংশগ্রহণের সুযোগ রয়েছে, তবে সম্মেলনস্থল থেকে ডেলিগেট কার্ড সংগ্রহ করতে হবে।

আগামী ২০ সেপ্টেম্বর শুক্রবার রাজধানীর গুলিস্তানস্থ কাজী বশীর মিলনায়তনে উন্মুক্ত উদ্বোধনী সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন খেলাফত মজলিসের আমীর, অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক। সম্মেলনে দেশের বিশিষ্ট শিক্ষাবীদ ও জাতীয় নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখবেন।

ছাত্র মজলিসের সেক্রেটারী জেনারেল মনসুরুল আলম মনসুর বলেন, ইতিমধ্যেই দেশের বিভিন্ন জেলা মহানগর দায়িত্বশীল ও কর্মী রাজধানী ঢাকায় এসেছেন, অনেক রাস্তায় আছেন আশাকরি যথাসময়ে উপস্থিত হবেন। আল্লাহ তায়ালা যেন তাদেরকে নিরাপদে পৌছান। সংশ্লিষ্ট সকলকে যথাসময়ে উপস্থিত থাকার অনুরোধও করেছেন।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র মজলিস ১৯৯০ সালের ৫ই জানুয়ারি শুক্রবার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ থেকে এক ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তের মাধ্যমে জ্ঞান অর্জন চরিত্র গঠন ও সমাজ বিপ্লবে জিহাদে শরীক হোক এই শ্লোগান নিয়ে এক ঝাক মেধাবি ছাত্র সমাজের স্বতন্ত্র শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসেবে দেশের স্কুল, কলেজ, আলিয়া মাদ্রাসা ও কওমি মাদ্রাসা পড়ুয়া ছাত্রদের সন্ত্রাস মুক্ত আদর্শ ছাত্র সংগঠন হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে।

বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র মজলিস শুরু থেকেই এরশাদ সরকার বিরোধী আন্দোলন, বাবরি মাসজিদ পুর্ন নির্মানের দাবীতে ঐতিহাসিক লংমার্চে প্রচারনা ও নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন, বিএনপি খালেদা জিয়া সরকারের আমলে মুরতাদ তাসলিমা নাসরিন বিরোধী আন্দোলনে কিশোরগঞ্জের রাজ পথে ছাত্র মজলিসের কর্মী আরমান শাহাদাত বরণের মধ্যেদিয়ে মুরতাদ তাসলিমা দেশ ছাড়ে পালিয়ে যায়। এক কথায় দেশ ও ইসলাম বিরোধী সকল অপ-শক্তির মোকাবিলায় ছাত্র মজলিস শুরু থেকে এ পর্যন্ত রেখেছে এক অনন্য ভূমিকা।

আই.এ/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন