রকেট হামলার সতর্কতা; ভয়ে পালালো নেতানিয়াহু

প্রকাশিত: ১২:৪৭ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯

রকেট হামলার সতর্কতা জানিয়ে বাজানো সাইরেন শুনে নির্বাচনী প্রচারণা মঞ্চ ছেড়ে ভয়ে পালিয়ে নিরাপদ স্থানে আশ্রয় নিতে বাধ্য হয়েছেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। ইসরায়েলের দক্ষিণাঞ্চলীয় বন্দর শহর আশদোদে মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে।

সাধারণ নির্বাচনের এক সপ্তাহ আগে আশদোদের নির্বাচনী প্রচারণা সমাবেশে তখন ভাষণ দিচ্ছিলেন ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী। এ সময় রকেট হামলার সাইরেন বাজলে তাকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিতে তার দেহরক্ষীরা মঞ্চে জড়ো হন। কয়েক মিনিট নিরাপদ আশ্রয়ে থাকার পর নেতানিয়াহু মঞ্চে ফিরে ফের ভাষণ শুরু করেন। তার ডানপন্থি লিকুড পার্টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাষণ সরাসরি সম্প্রচার করছিল, তখন নেতানিয়াহুর মঞ্চ ছাড়ার ঘটনাটাও সরাসরি দেখা যায়।

ভাষণে ১৭ সেপ্টেম্বরের নির্বাচনে ফের জয় পেলে অধিকৃত পশ্চিম তীরের একটি অংশ ইসরায়েলে অন্তর্ভুক্ত করে নেওয়ার একটি পরিকল্পনা ঘোষণার কিছুক্ষণ পর রকেট হামলা হয়। প্রধানমন্ত্রী মঞ্চ ছাড়াতে বাধ্য হচ্ছেন, এটি দেখার পর তার রাজনৈতিক বিরোধীরা দক্ষিণ ইসরায়েলে সীমান্তের অন্য পাশ থেকে চালানো রকেট হামলা থামাতে নেতানিয়াহু যথেষ্ট পদক্ষেপ নেননি বলে সমালোচনা শুরু করে। ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, ফিলিস্তিনের গাজা থেকে ছোড়া দুটি রকেটের একটি আশদোদ ও অন্যটি একটু দক্ষিণের অপর বন্দর শহর আশকেলোনের দিকে আসার সময় আয়রন ডোম অ্যান্টি-মিসাইল সিস্টেম দিয়ে সেগুলো প্রতিরোধ করা হয়।

তাৎক্ষণিকভাবে কোনো সংগঠন রকেট নিক্ষেপের দায় স্বীকার করেনি। এর পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে কয়েক ঘণ্টা পর বুধবার ভোররাতে ইসরায়েলি যুদ্ধবিমানগুলো গাজায় হামলা চালায়। ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, অস্ত্র নির্মাণ কারখানা, একটি নৌ কম্পাউন্ড, হামাসের মালিকানাধীন একটি টানেলসহ ১৫টি লক্ষ্যে হামলা চালানো হয়েছে। এসব হামলায় কেউ হতাহত হয়েছেন কিনা, তাৎক্ষণিকভাবে কোনো খবর পাওয়া যায়নি। গত এক দশকে গাজা নিয়ন্ত্রণকারী ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ সংগঠন হামাসের সঙ্গে ইসরায়েল তিনবার যুদ্ধে লিপ্ত হয়েছে।

আই.এ/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন