এই দেশ এবং দেশের সজীবতাই আমাদের প্রাণের শিকড়

প্রকাশিত: ৮:০০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ৪, ২০১৯

সাঈদুর রহমান সাদী

স্বাধীন বাংলাদেশ আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি। গাছ গাছালির ছায়া ঢাকা, পাখি ডাকা, নদ-নদী, পাহাড় জঙ্গলে ভরপুর আমাদের এই সোনার বাংলাদেশ। যা সত্যিই আমাদের অন্তরকে সর্বদা আনন্দ দিয়ে থাকে। এ দেশের প্রকৃতি যেমন চির সৌন্দর্যময়ী , তেমনি নিত্য প্রফুল্ল। এবং এটাই চিরসত্য।

সোনার খনি না থাকলেও এদেশের দিগন্ত বিস্তৃত সবুজ মাঠের পরতে পরতে সোনা ছড়িয়ে আছে। তাই তো প্রতিনিয়ত আমরা আপন মনেই গেয়ে উঠি ‘আমার সোনার বাংলা আমি তোমায় ভালোবাসি’। বাংলাদেশ ঋতু বৈচিত্র্যের দেশ। রূপসী বাংলার রূপের তুলনা বাস্তবিকই বিরল। প্রতিটি ঋতুতে বাংলা যেন হরেক রঙে হরেকরূপ ধারণ করে। পালা বদলের আবর্তে বিচিত্র রূপ ও বেশভূষা নিয়ে আসে ছয়টি ঋতু। একটি শেষ না হতেই, আরেকটি হাজির।

প্রকৃতির নতুন নতুন উপহার হরেক রকম প্রভাব ফেলে মানুষের অন্তরে। এদেশে একদিকে যেমন সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি আবহমানকাল থেকেই জারি রয়েছে তেমনি যুগযুগ ধরে মুসলিম, হিন্দু, খ্রিষ্টান ও বৌদ্ধ পাহাড়ী, উপজাতিদের বহু প্রাচীন নিদর্শন এদেশের আনাচে-কানাচে ছড়িয়ে আছে। মানুষের মহত গুণাবলীর অন্যতম হচ্ছে দেশকে ভালোবাসা।

স্বদেশ প্রেমের আবেগ অন্তর্ভেদী ও  স্বতস্ফুর্ত। দেশপ্রেমে উজ্জীবিত জনগোষ্ঠী যে কোনো দেশের সবচেয়ে মূল্যবান সম্পদ। মানুষের ব্যক্তিসত্তার উৎকর্ষ এবং জাতীয় অগ্রগতিতে দেশপ্রেম অনন্য ভূমিকা পালন করে থাকে। দেশপ্রেম ঈমানেরও অঙ্গ। মায়ের বুকের মতই স্বদেশের মাটি মানুষকে টানে। মাতৃভাষার বাণী তার হৃদয়কে সুশীতল করে। বিদেশে অবস্থানকালে কিংবা দেশের দুর্দিনে তার প্রাণ ডুকরে উঠে, আবার সুদিনে আন্দোলিত হয় হৃদয়মন।

বাংলা সাহিত্যের হাজার বছরের ইতিহাসে সবচেয়ে আবেগতাড়িত বিষয় বলে বিবেচিত হয়েছে দেশপ্রেম। বৈচিত্র্যময় প্রকৃতি ও লীলাময় ঋতুচক্রের আবর্তে এদেশের শস্য-শ্যামল প্রান্তর, ছায়া-সুনিবিড় , নদীর কলতান শান্তির নীর গ্রামগঞ্জ, কোকিলের কুহুতান, ভ্রমরের গুঞ্জন, ভোররাতে মসজিদের মিনারা হতে ভেসে আসা সুরের টান আমাদের হৃদয়কে গভীরভাবে নাড়া দেয়। এদেশের সবুজ ঘেরা পাহাড়, নদী-নালা, সমুদ্র-সৈকত ইত্যাদির মোহে মুগ্ধ হয়ে কত দেশি বিদেশি ভিড় জমায় সবুজ বাংলার বিভিন্ন প্রান্তে। এসবই মহান রবের দান। জাতি হিসেবে আমরা পেয়েছি স্রষ্টার অপার রহমত। এই দেশ এবং এই দেশের সজীবতাই আমাদের প্রাণের শিকড়।

/এসএস

মন্তব্য করুন