লন্ডনে বাংলাদেশী দুই তরুণ ফটোগ্রাফারের সাফল্য

প্রকাশিত: ৯:৪১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২৬, ২০১৯
ইমরান হোসাইন ও তাসাওয়ার ইসলাম

শখের বসে ছবি তোলা তার কাজ। সেই শখ থেকে এখন নেশায় পরিনত হয়েছে ছবি তোলা, গড়ে তুলেছেন ফটোগ্রাফারদের কল্যানে ‘চাটগাঁর ছবিয়াল’ নামে একটি সংগঠনও। বলা হচ্ছে চট্টগ্রামের তরুণ ফটোগ্রাফার ইমরান হোসাইনের কথা। ইমরান হোসাইনের জন্ম মূলত নোয়াখালীতে। থাকেন চট্টগ্রামে। ছবি তোলা শুরু করেন ২০১৫ সাল থেকে। সেই থেকে আর পিছনে ফিরে থাকতে হয়নি। একে একে সাফল্যের খবর আসছেই। রয়েছে বহু জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অর্জন।

ইমরানের তোলা ছবি

দ্বিতীয়স্থান অর্জন করা ইমরান হোসাইনের ছবি

সম্প্রতি লন্ডনে অনুষ্ঠিত স্ট্রিট ফটোগ্রাফির বড় উৎসব ‘লন্ডন ফটোগ্রাফি ফেস্টিভ্যাল’- এ আন্ডার ২১ ক্যাটাগরিতে ২য় স্থান অর্জন করেছে তার একটি ছবি। ছবিটি নিয়ে ইমরান হোসাইন বলেন, ‘আমি ১৯৯৯ থেকেই চট্টগ্রাম শহরে আছি, আমার পড়াশোনা এবং শৈশবের সময়টা এখানেই কাটিয়েছি, আমি এই শহরের বহু অলিতে-গলিতে হেঁটেছি এবং অবলোকন করছি সাধারণ মানুষের জীবনচিত্র, সেটা নিয়ে একটা ডকুমেন্টারি করছি তারই অংশ এই ‘শ্রমিকদের জীবন ছবি’ শিরোনামের এই ছবিটি’।

ইমরান বলেন, ‘ছবিটি লন্ডন ফটোগ্রাফি ফেস্টিভ্যালে ২য় স্থান অর্জন করে নিতে পেরেছে এটা আমার ফটোগ্রাফিক ক্যারিয়ারে অনেক বড় অনুপ্রেরণা’।

প্রতিযোগীতার একই ক্যাটাগরিতে ৩য় স্থান অর্জন করেছে আরেক বাংলাদেশী তরুণ ফটোগ্রাফার মোহাম্মদ তাসাওয়ার ইসলাম এর ছবি। তিনি পড়াশোনা করছেন মিলিটারি ইনস্টিটিউট অব সাইন্স এন্ড টেকনোলজির অনার্স ২য় বর্ষে যন্ত্রপ্রকৌশল বিভাগে। তার ফটোগ্রাফির হাতেখড়ি ২০১৪ সালে। মোবাইলেই বেশীরভাগ ছবি তুলেন তিনি।

লন্ডন ফটো ফেস্টিভাল

তাসাওয়ার ইসলামের তৃতীয়স্থান অর্জন করা ছবি

লন্ডনে এই সাফল্যের কথা ব্যক্ত করে তিনি বলেন, ‘আমি যখন ছবিটি তুলি তখন কলেজে পড়তাম, ঐ সময় আমাদের কলেজে একটা ফেস্টিভ্যাল চলছিলো, তখন আমি দেখি একজন মানুষ বেলুন হাতে খুবই অবসাদগ্রস্থ অবস্থায় মাথাটি নিচু করে বসে আছে। তখনি ছবিটা তুলে ফেলি। ছবিটা এখনো আমাকে অনেক কিছু শিখায়। এই ছবিটিই যে লন্ডনের আন্তর্জাতিক ফেস্টিভালে ৩য় স্থান অর্জন করে নিবে কল্পনাও করিনি। আসলেই এ অর্জনে আমি খুব আনন্দিত। এতোটাই আনন্দিত যা বুঝাতে পারবো না’।

গত ২৩ আগষ্টে শুরু হওয়া লন্ডন স্ট্রিট ফটোগ্রাফি ফেস্টিভ্যাল ২৫ আগষ্টে পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শেষ হয়।

/এসএস

মন্তব্য করুন