স্বাধীন ভারতের প্রথম পতাকা উঠেছিলো একজন মুসলিমের হাতে

প্রকাশিত: ২:১২ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৪, ২০১৯

১৯৪৭ সালের আগষ্ট মাসে ভারত পাকিস্তান বাটোয়ারার ভিত্তিতে স্বাধীন হয়েছিলো ব্রিটিশ বেনিয়াদের কাছ থেকে। ভারতের লালকেল্লার শিয়রে পতপত করে উড়তে থাকা “তিরঙ্গা” পতাকা ভারতের গৌরবের প্রতীক হিসেবে ধরা হয়। ১৯৪৭ সালের আগে ঐ একই স্থানে বৃটিশ পতাকা উড়তো।

হিন্দু অধ্যুষ্যিত ভারত হওয়া সত্বেও লালকেল্লার শিয়র থেকে ব্রিটিশ পতাকা সরিয়ে ভারতের পতাকা উত্তোলন করেছিলো একজন মুসলিম। তিনি হলেন আজাদ হিন্দ বাহিনীর মেজর, “জেনারেল শাহনওয়াজ খান” তিনিই সর্বপ্রথম লালকেল্লায় ভারতের পতাকা উত্তোলন করেছিলেন। যার জন্ম, ২৪ জানুয়ারি ১৯১৪, এবং মৃত্যু ৯ ডিসেম্বর ১৯৮৩।

ব্রিটিশ খেদাও আন্দোলনে যারা দেশের জন্য নিজের সর্বস্ব ত্যাগ করেছিলেন, জেনারেল শাহনেওয়াজ ছিলেন তাঁদের মধ্যে অন্যতম। তিনি দারুণ বক্তৃতা দিতে পারতেন। লালকেল্লায় প্রতিদিন সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত “লাইট-এন্ড সাউন্ড শো”-তে শাহনেওয়াজ খান এর কন্ঠে বক্তৃতা শোনা যেত।

তিনি ছিলেন অবিভক্ত ভারতের বাসিন্দা, পার্টিশন এর সময়, পাকিস্তানে গোটা পরিবারকে ছেড়ে, একাই ভারতে চলে এসেছিলেন, পাকাপাকি ভাবে। কারণ তাঁর পরিবার চেয়েছিল পাকিস্তানে থাকতে, কিন্তু তিনি চাননি। স্বাধীনতা পরবর্তীতে উত্তর প্রদেশের “মেরঠ” থেকে নির্বাচনে চারবার প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন, প্রতিবার বিজয়ী হন। এবং কেন্দ্রীয় মন্ত্রীসভায় জায়গা করে নিয়েছিলেন।

১৯৬৫ সালের ভারত -পাকিস্তান যুদ্ধ, শাহনওয়াজ খান এর কাছে এক মর্মান্তিক ঘটনা হিসাবে চিহ্নিত। তিনি নিজে ছিলেন ভারতের মন্ত্রী, এবং তাঁর পূত্র কর্নেল মেহমুদ আলী ছিলেন, পাকিস্তান সেনাদলের গুরুত্বপূর্ণ অফিসার। সেই সময় বেশকিছু অতি দেশভক্ত মানুষ, তাঁর পদত্যাগ দাবি করেছিলেন। কিন্তু লাল বাহাদুর শাস্ত্রী তাঁর পাশে দাঁড়িয়ে, সম্পূর্ণ সমর্থন করেছিলেন।

এমন অনেক শাহ নেওয়াজদের হাতেই ভারতের স্বাধীনতা রচিত হয়েছিলো কিন্তু ভারত সরকার সেই দায় ভুলে গিয়ে গো-রক্ষার নামে মুসলমানদের উপর অত্যাচার চালিয়ে যাচ্ছে নির্বিবাদে। কাশ্মীরের মুসলমানদের উপর চালাচ্ছে নির্মম নির্যাতন অথচ ভারতকে ব্রিটিশমুক্ত করে স্বাধীন করতে মুসলমানদের ছিলো বিশাল অবদান।

মন্তব্য করুন