ইসলামী আন্দোলনের বিক্ষোভের প্রতিবাদে ভারতে বিজেপির বিক্ষোভের ঘোষণা

প্রকাশিত: ৬:৪৬ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১, ২০১৯

ভারতে চলমান মুসলিম নির্যাতনের প্রতিবাদে ও মুসলিম বিরোধী সহিংসতা বন্ধের দাবিতে রাজধানীতে বিক্ষোভ করেছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। গত ৩০ জুলাই পূর্ব ঘোষিত ভারতীয় দূতাবাস ঘেরাও করার লক্ষ্যে রাজধানীর বাইতুল মোকাররমের দক্ষিণ গেটে জড়ো হয় দলটির হাজার হাজার নেতাকর্মী। পুলিশি বাধায় দূতাবাস পর্যন্ত যেতে না পারলেও গণমিছিল ও বিক্ষোভ করে দলটি। এবার এরই প্রতিক্রিয়ায় দিল্লিতে বাংলাদেশে হাইকমিশনের সামনে বিক্ষোভ করার ঘোষণা দিয়েছেন ভারতীয় ক্ষমতাসীন দল বিজেপি।

কলকাতার জনপ্রিয় বাংলা পত্রিকা কলকাতা২৪*৭ এর খবরে এসব কথা বলা হয়। খবরে বলা হয়, শহরে বাংলাদেশের ডেপুটি হাই কমিশনের দফতরের সামনের বড়সড় বিক্ষোভ দেখতে চললো বিজেপি। বাংলাদেশ ধর্মীয় সংখ্যালঘু সম্প্রদায় বিশেষ করে হিন্দুদের নিরাপত্তা চেয়ে এই বিক্ষোভে বৃহস্পতিবার অংশগ্রহণ করবেন শতাধিক বিজেপি কর্মী। বাংলাদেশের হিন্দু কন্যা প্রিয়া সাহা বিপদের মুখে সেদেশ ছেড়েছেন। বাংলাদেশ হাই কমিশনের সামনে বিক্ষোভে প্রিয়া সাহার বিষয়টিও প্রাধান্য পাবে।

তবে , সম্প্রতি বাংলাদেশে কিছু গোষ্ঠী ঢাকায় ভারতের হাই কমিশনের সামনে বিশাল জনতাকে নিয়ে গিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছে। তাদের দাবি ছিল, ভারতে নাকি মোদী সরকারের আমলে মুসলমানদের উপর নিপীড়ন চলছে। এছাড়া , প্রিয় সাহা নামে ওই হিন্দু মহিলা বাংলাদেশকে অপমান করেছেন। এই সব কিছুর প্রতিবাদক্ষেত্র হিসাবে তারা ভারতীয় হাই কমিশনকে বেছে নেয়। বৃহস্পতিবার কলকাতার পার্ক সার্কাসে বঙ্গবন্ধু সরণিতে বাংলাদেশ হাই কমিশনের সামনে বিজেপির ওই বিক্ষোভ কর্মসূচিকে পালটা কার্যক্রম বলেই ধারণা করা হচ্ছে।

সংশ্লিষ্ট খবর:
ভারতীয় দুতাবাস অভিমূখে ইসলামী আন্দোলনের গণমিছিল জনসমুদ্রে রুপ নিয়েছে

যদিও রাজ্য বিজেপি একে পাল্টা কার্যক্রম মানতে নারাজ। রাজ্য বিজেপি নেতা এবং উদ্বাস্তু সেলের আহ্বায়ক মোহিত রায় বলেন, ‘একটা পাল্টা কর্মীসূচি নয়। আমরা বাংলাদেশ হাই কমিশনকে প্রতিবাদ পত্র জমা দেব। তা ই মেল করে জানিয়েছি। আমরা বিক্ষোভও দেখাবো’। উল্লেখযোগ্য, সম্প্রতি আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে সাক্ষাত করেন হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নেতা প্রিয়া। তিনি বাংলাদেশের সংখ্যালঘুদের অবস্থা নিয়ে বক্তব্য রাখেন। বাংলাদেশে ওই বক্তব্য নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা ও বিতর্কের মুখে পড়েন প্রিয়া সাহা। তবে কেউ কেউ তাঁর পাশেও দাঁড়িয়েছেন।

এতে আরো বলা হয়, বাংলাদেশে কয়েকদিন আগেই ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ সংগঠনের নেতৃত্বে বায়তুল মোকাররম মসজিদ থেকে শুরু হয় গণ জমায়েত ও মিছিল। শয়ে শয়ে সমর্থক এতে যোগ দিয়েছেন। বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেটের সামনে থেকে নয়াপল্টন মোড় পর্যন্ত এলে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের কর্মীদের বাধা দেয় পুলিশ। সেখানেই মিছিল শেষ হয়। এরপর শুরু হয় গণজমায়েত ও ধর্না। ভারতে মুসলিম হত্যা ও নির্যাতনের অভিযোগ তুলে বিক্ষোভ মিছিল শুরুর আগে এক সমাবেশ হয়।

এই সমাবাশে ইসলামি আন্দোলন সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতারা ভাষণ দেন। উত্তেজিত হয়ে কর্মীরা ভারত বিরোধী উস্কানিমূলক স্লোগান দিতে শুরু করে। এর জেরে পরিস্থিতি হয়ে যায় সরগরম। এরপর স্মারকলিপি প্রদানের উদ্দেশ্যে ভারতীয় দূতাবাস অভিমুখে বিক্ষোভ মিছিল শুরু করে তারা। বাংলাদেশের এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতেই আজ বাংলাদেশ হাই কমিশনের সামনে বিক্ষোভ দেখাবে বিজেপি তা প্রায় নিশ্চিত। মোহিত রায় ছাড়াও উপস্থিত থাকবেন, রাজ্য বিজেপি সহ সভাপতি বিশ্বপ্রিয় রায় চৌধুরি, সংকৃতিক সেলের সুমন মুখোপাধ্যাও।

আরো পড়ুন:
পুলিশের বাধায় ভারতীয় দুতাবাস অভিমূখে গণমিছিল করতে পারেনি ইসলামী আন্দোলন

/এসএস

মন্তব্য করুন