ইরানে হামলার নির্দেশ দিয়ে ফের পিছিয়ে এলেন ট্রাম্প

প্রকাশিত: ৬:৫৮ অপরাহ্ণ, জুন ২১, ২০১৯

মার্কিন ড্রোন ভূপাতিত হওয়ার পর আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানের বিরুদ্ধে হামলার নির্দেশ দিয়েছিলেন।

আজ (শুক্রবার) খুব ভোরে এ হামলা চালানোর জন্য গতরাতে নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। কিন্তু পরে গতরাতেই তড়িঘড়ি সে নির্দেশ পুনরায় বাতিল করে দেন বলে জানিয়েছে মার্কিন দৈনিক নিউ ইয়র্ক টাইমস।

সামরিক এবং কূটনৈতিক কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে এ খবর পরিবেশন করা হয়েছে।

দৈনিকটির খবরে আরও বলা হয়েছে, ইরানের কয়েকটি রাডার এবং ক্ষেপণাস্ত্র অবস্থানের ওপর হামলার নির্দেশ দেয়া হয়েছিল।

হামলার প্রাথমিক প্রস্তুতি নেয়ার সময় তা বাতিল করে দেয়া হয় বলে মার্কিন সরকারের উচ্চপদস্থ এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে জানায় টাইমস।

এ কর্মকর্তা বলেন, বিমান এবং যুদ্ধজাহাজ হামলার জন্য প্রয়োজনীয় অবস্থান গ্রহণ করেছিল।

কিন্তু কোনও ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়া হয়নি এবং সে সময়ে হামলা বন্ধের নির্দেশ পাওয়া যায়। তিনি জানান, স্থানীয় সময় রাত প্রায় দু’টোয় মার্কিন বাহিনীকে ঘুম থেকে তোলা হয়।

দৈনিকটি আরও জানায়, ‘এক ঘণ্টার’ মধ্যে হামলা হবে বলে তাদের বলা হলেও শেষ পর্যন্ত তেমন কিছু ঘটেনি।

মার্কিন পূর্বাঞ্চলীয় সময় অনুযায়ী, সকাল সাড়ে ৬টা এমনকি ৭টা পর্যন্ত হামলার পরিকল্পনা বহাল ছিল।

মার্কিন হামলার সম্ভাব্য লক্ষ্যবস্তু সম্পর্কে খবর দিয়েছে মার্কিন সাপ্তাহিক নিউজউইক।

এতে বলা হয়েছে, সাবেক সোভিয়েত আমলে নির্মিত এস-১২৫ নেভা/পিচোরা ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপকারী ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা এ হামলার লক্ষ্যবস্তু হিসেবে নির্ধারিত হয়েছিল।

মার্কিন সেনাবাহিনী দাবি করছে, দেশটির চালকহীন বিমান আরকি-৪এ গ্লোবাল হক ফেলে দেয়ার জন্য ইরানের ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি এ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করেছে।

কিন্তু ইরান বলেছে, এ কাজে নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি ৩য় খোরদাদ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা এবং রাডার ব্যবহার করা হয়েছে।

এটি ইরানের তৈরি ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য রা’দ ক্ষেপণাস্ত্রের একটি সংস্করণ।

আইএ/পাবলিক ভয়েস

মন্তব্য করুন