নিরাপদ বাংলাদেশ গড়তে তরুণদের এগিয়ে আসার আহবান ব্যারিস্টার সুমনের

প্রকাশিত: ৫:০২ অপরাহ্ণ, মে ১৯, ২০১৯

একটি নিরাপদ ও সমৃদ্ধশালী বাংলাদেশ গড়তে তরুণদের এগিয়ে আসার আহবান জানিয়েছেন সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী ও আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুনালের প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমন।

জাতীয় ও আঞ্চলিক সকল সড়ক থেকে বৈদ্যুতিক খুটি অপসারণে আদালত থেকে দেওয়া পরিপত্রের বিষয়ে সবাইকে সচেতন করতে ফেসবুকে লাইভে দেওয়া বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি তরুণদের উদ্দেশ্য করে বলেন, “তরুণরা জাগলেই বাংলাদেশ জাগবে। বাংলাদেশ তার মূল লক্ষে পৌছাতে পারবে। সবাই যদি একটু একটু করেও দেশের সমৃদ্ধির জন্য কাজ করে তাহলেও দেশটা এগিয়ে যাবে অনেক দুর পর্যন্ত”

তিনি সবাইকে উদ্দেশ্য করে বলেন, দেশের যেখানেই মহাসড়কে বা রাস্তায় বৈদ্যুতিক খুটি দেখবেন সেখানেই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আদালতের রুলস এবং নির্দেশনার কপি নিয়ে যাবেন। তারা তখন এ খুটি সরাতে বাধ্য হবে। আদালত ৬০ দিনের মধ্যেই সকল খুটি সরানোর নির্দেশ দিয়েছে।

প্রসঙ্গত : সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে বাংলাদেশের আলোচিত ব্যাক্তি ব্যারিস্টার সুমনের করা রিটের উপর ভিত্তি করেই মহামান্য হাইকোর্ট বলেছেন, “সারাদেশে সড়ক-মহাসড়কে সকল বিপজ্জনক বৈদ্যুতিক খুটি অপসারন করার জন্য এবং বিপজ্জনক এসব খুটি সরানো হবে না কেনো তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত”

জনস্বার্থে দায়ের করা ওই রিটের প্রাথমিক শুনানি শেষে বৃহস্পতিবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের হাইকোর্ট বেঞ্চ রুলসহ এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন রিটকারী আইনজীবী ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মোখলেসুর রহমান।

পরে আদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করে ব্যারিস্টার সুমন জানান, দ্রুত সময়ের মধ্যে বিপদজনক এসব খুঁটি সরাতে হবে। তবে তা অবশ্যই ৬০ দিনের বেশি হবে না।

উল্লেখ্য, গত কিছুদিন আগে নরসিংদীর শিবপুর থানার কালারচর নামক জায়াগার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে পল্লীবিদ্যুতের একটি খুঁটি নিয়ে লাইভের ২৪ ঘন্টার মধ্যে খুটিটি রাস্তা থেকে সরিয়ে নেয় কর্তৃপক্ষ। এরপরই তিনি দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এরকম খুটির কথা সাধারন মানুষ তাকে জানাতে থাকেন। এমতাবস্থায় তিনি রাস্তায় থাকা খুটি সরাতে মহামান্য হাইকোর্টে রিট করার ঘোষনা দেন।

মন্তব্য করুন