মুফতী ফয়জুল কারীম ; আপনাকে সালাম !

প্রকাশিত: ১২:১২ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০১৯

ভুল সকলের হয়। পৃথিবীতে যারাই প্রকৃত আলেম ছিলেন, তাদের অনেকেরই জাল্লাত তথা বিচ্যূতি ছিলো। কিন্তু উলামায়ে কেরাম তাদেরকে সে ব্যাপারে অবগত করলে সাথে সাথে তারা নিজের মত থেকে সরে এসেছেন। এতে তাদের মর্যদা কমেনি। বরং ইতিহাসের পাতায় তারা স্বরণীয় হয়ে আছেন।

পড়ুন- মুফতী ফয়জুল করীম : যা বললেন তার আলোচিত চরমোনাই মাহফিলের বয়ান নিয়ে

একটি বাস্তবতা আমাদের সকলকে মানতে হবে। বাংলাদেশের একটি বিশাল সংখ্যক মানুষ মুফতী ফয়জুল কারীম হাফিজাহুল্লাহকে অনুসরণ করে। তার দেওয়া দিক-নির্দেশনা অনুযায়ী জীবনকে ঢেলে সাজানোর প্রাণান্তকর চেষ্টা করে। এছাড়া রাজনীতির ময়দানে তিনি অনেক তরুণের প্রেরণা। তরুণ নেতৃত্বের আলোচনা আসলে সবার আগে উঠে আসে তাঁর নাম। তাকে নিয়ে একটি বিশাল সংখ্যক মানুষ স্বপ্ন দেখে।

চরমোনাই এর ময়দানের প্রতি বছর হেদায়াতপ্রত্যাশীরা ভীড় করেন। লাখ লাখ পথভোলা মানুষ সঠিক পথের দিশা পাওয়ার আশায় সেখানে একত্রিত হয়। সমবেত লাখ লাখ মানুষের উদ্দেশ্যে নসিহতমূলক বয়ান যারা করেন, তাদের মাঝে অন্যতম হলেন মুফতী ফয়জুল কারীম হাফিজাহুল্লাহ। স্বাভাবিকভাবে তাঁর কোনো কথা থেকে ভুল মেসেজ গেলে অথবা ভুল অর্থ উদ্দেশ্য নেওয়ার সম্ভাবনা তৈরী হলে অনেক জনসাধারণ বিভ্রান্ত হবে সহজেই। কিন্তু আমাদের মনে রাখতে হবে মুফতী ফয়জুল কারীম হাফিজাহুল্লাহ আমাদের মতোই রক্ত মাংশে গড়া মানুষ। তাঁর ভুল হতেই পারে। ভুল হওয়ার পর ভুলের উপর অবিচল থাকা হলো ভ্রষ্টতা।

এবারের মাহফিলে মুফতী সাহেবের একটি বক্তব্য নিয়ে ধুম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে। কারণ তাঁর বক্তব্য থেকে প্রত্যক্ষভাবে উসমান রা. এর ব্যাপারে অভিযোগ করা হয়েছিলো। খুব ভালো লেগেছে মুফতী সাহেব বিষয়টি অবগত হওয়ার সাথে সাথে তিনি নিঃশর্তভাবে প্রত্যাবর্তন করেছেন। চাইলে বিভিন্ন ব্যাখ্যা দাড় করাতে পারতেন। কিন্তু সরাসরি তিনি রুজু করে একটি অনন্য নজীর স্থাপন করেছেন। ইতিহাসে মুফতী সাহেবের নামও স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে।

মুফতী ফয়জুল কারীম! বাংলাদেশে আলোচিত একটি নাম। আপনাকে সালাম। এ ধারা চালু থাকুক। সাদ সাহেব সহ বাকি সকলেই মুফতী সাহেবের কাজ থেকে শিক্ষাগ্রহণ করুক।

মন্তব্য করুন