ইসলামী দলগুলোকে নির্বাচনী ঐক্যের আহবান মাও. মামুনুল হকের

প্রকাশিত: ৩:৪৩ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ১৭, ২০১৯

বিশেষ রিপোর্ট: বাংলাদেশ খেলাফত যুব মজলিসের সভাপতি, ইসলামপন্থী তরুণদের এক অংশের কাছে গ্রহণযোগ্য ব্যক্তি মাওলানা মামুনুল হক ইসলামী দলসমূহকে এক হয়ে নিরপেক্ষ সরকার প্রতিষ্ঠা করে নির্বাচনী ঐক্যের মাধ্যমে একত্রে নির্বাচন করার আহবান জানিয়েছেন।

গতকাল রাতে ‘বাংলাদেশের ইসলামী রাজনীতি’ বিষয়ক আলোচনা করতে ফেসবুক লাইভে এসে তিনি এ আহবান জানান।

ফেসবুক লাইভের শুরুতে তিনি পাকিস্তানের রাজনৈতিক পরিস্থিতির কড়া সমালোচনা করে বাংলাদেশের রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ সেই পাকিস্তানের পথে না হাঁটার কথা বলেন। সাথে সাথে তিনি ভারতীয় রাজনৈতিক পরিস্থিতির প্রশংসা করে বলেন, ভারতে রাজনৈতিক অস্থিরতা কম এবং সেখানে বিভিন্ন ধর্মমতের লোক থাকা সত্ত্বেও রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার কারনে মানুষ সহজে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারে। নিজেদের ইচ্ছেমত নেতা নির্বাচন করতে পারে।

ইসলামী রাজনীতি এবং বাংলাদেশের রাজনীতি নিয়ে তিনি কথা বলতে গিয়ে আওয়ামী লীগ বিএনপিসহ হেফাজতে ইসলাম বিষয়ে কথা বলেছেন।

আওয়ামী লীগ কঠোরভাবে ইসলামী শক্তির বিরোধী এবং তারা এই মৌলবাদ দমন ইস্যূতে আন্তর্জাতিক সমর্থনও পেয়েছে বলে মতামত তার। বিশেষ করে ৫-ই মে রাতের ‘ক্রাকডাউন’ বিশ্বমহলে আওয়ামী লীগ ইসলামপন্থীদের দমন করতে পারবে এমন শক্তি হিসেবে গ্রহণযোগ্যতা দিয়েছে।

উল্লেখ্য; ৫-ই মে কোন হামলা বা কাউকে হত্যা করা হয়নি বলে দাবি করেছে আওয়ামী লীগ সরকার। বিশেষ করে কওমী মাদরাসার শিক্ষা সংগঠনের সমন্বয়ে আয়োজিত ‘শোকরানা মাহফিলে’ এ বিষয়ে স্পষ্ট কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রীর সচিব। তিনি বলেছেন, ৫-ই মে তারিখে কাউকে হত্যা করা হয়নি।

বিএনপির রাজনীতি নিয়ে কথা বলতে গিয়ে মামুনুল হক বলেন, বিএনপি এখন এক সময়ের নাস্তিকদের সঙ্গে থাকা, কাদীয়ানীদের পক্ষে থাকা ড. কামালদের সামনে এনে দেখাতে চাইছে যে, তারা এখন ইসলামপন্থীদের সাথে নেই। বিশেষ করে হেফাজতের আমীর আল্লামা আহমদ শফীর বক্তব্যের যে প্রতিক্রিয়া তারা দেখিয়েছে তাতে তারা এটা স্পষ্ট করে দিয়েছেন যে ‘তারা এখন ইসলামপন্থীদের পক্ষে নেই বা থাকতে চাচ্ছেন না’

জামায়াতের রাজনীতি বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, জামায়াতের উচিত স্বাধীনতা যুদ্ধের সময়কার ভূমিকা এবং জামায়াতের প্রতিষ্ঠাতা মওদুদী সম্পর্কে অবস্থান পরিস্কার তবে রাজনীতি আসা।

এছাড়াও ফেসবুক লাইভে দেশের সমসাময়িক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কথা বলেন তিনি। প্রায়ই তিনি ফেসবুক লাইভে এসে রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে বিভিন্ন মতামত দিয়ে থাকেন।

মন্তব্য করুন